kalerkantho


তরুণদের মোদি ও আবদুল্লাহ

সন্ত্রাসবাদের কোনো ধর্ম নেই

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৩ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



সন্ত্রাসবাদের কোনো ধর্ম নেই

‘এক হাতে কোরআন শরিফ থাক, অন্য হাতে উঠুক কম্পিউটার। ধর্মীয় বিশ্বাসের পাশাপাশি যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আধুনিক হয়ে ওঠারও প্রয়োজন রয়েছে।’ দিল্লিতে বৃহস্পতিবার ‘ইসলামিক হেরিটেজ : প্রোমোটিং, আন্ডারস্ট্যান্ডিং অ্যান্ড মডারেশন’ নামের এক অনুষ্ঠানে এই বার্তা দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেছেন, ‘সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই চালানো মানে কোনো বিশেষ ধর্মীয় মতাদর্শের বিরোধিতা করা নয়। যে মানসিকতা যুবসমাজকে বিভ্রান্ত করে, লড়াইটা তার বিরুদ্ধে।’

ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ভারত সফররত জর্দানের বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহ বিন হুসেইন। মোদির মতে, মুসলিমদের বিভ্রান্ত যুবসমাজকে ইসলামের মানবিক দিকগুলো বুঝতে হবে। এরই সঙ্গে আধুনিক প্রযুক্তিতেও তাদের দক্ষ হয়ে উঠতে হবে। তিনি বলেন, ‘সব ধর্মেই মনুষ্যত্বকে গুরুত্ব দেওয়া হয়। ভারতীয় সংবিধানেও বহুত্ববাদকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।’

ওই অনুষ্ঠানে মোদির বক্তব্যকে সমর্থন করে জর্দানের বাদশাহ বলেন, ‘এটা বুঝতে হবে, ধর্মের নামে হিংসা আসলে ধর্মের ওপরেই আঘাত। ধর্মের নামে যারা বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে তাদের চিহ্নিত করে আমাদের প্রত্যাখ্যান করতে হবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘ধর্মীয় মতবাদের সঙ্গে যেন মানবতার সংযোগ থাকে। ধর্মীয় বিশ্বাস আমাদের সমৃদ্ধ, বিকশিত করে। অশান্তির বিরুদ্ধে সবাইকে সঙ্গে নেওয়াই আমাদের সবচেয়ে শক্তিশালী অস্ত্র।’ বাদশাহ বলেন, ‘সোশ্যাল মিডিয়া এবং টিভি চ্যানেল থেকে ঘৃণার কণ্ঠ সরিয়ে দিতে হবে। গোটা বিশ্বই একটি পরিবার।’ সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।



মন্তব্য