kalerkantho


বিদেশি আইনজীবীদের আটক করে ফেরত পাঠাল মালদ্বীপ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



জরুরি অবস্থায় মালদ্বীপ কেমন চলছে, তা পর্যবেক্ষণ করতে যাওয়া চার আন্তর্জাতিক আইনজীবীকে আটক করে ফেরত পাঠিয়েছে প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিনের প্রশাসন। ওই আইনজীবীদের সংগঠন ল এশিয়া গতকাল বুধবার এ তথ্য জানায়।

আঞ্চলিক আইনজীবীদের এই সংগঠন আরো জানায়, প্রেসিডেন্ট ইয়ামিন মালদ্বীপে জরুরি অবস্থা জারি করার দুই দিন পর তাদের কাছে একটি উন্মুক্ত আমন্ত্রণপত্র পাঠান। এ প্রেক্ষাপটে তারা চার আইনজীবীকে মালদ্বীপে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু গত রবিবার মালে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছালে তাঁদের আটক করা হয়। পরে তাঁদের আবার বিমানে তুলে দেয় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

সংগঠনটি আরো জানায়, ‘এর মধ্য দিয়ে মালদ্বীপ সরকার পরিস্থিতি পর্যালোচনার স্বতন্ত্র, নিরপেক্ষ একটি সুযোগ হারাল। এই সত্যানুসন্ধানী দলটিকে মালদ্বীপের কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান অর্থায়ন করেনি।’

এদিকে প্রেসিডেন্ট ইয়ামিনের ভাস্তি ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী দুনিয়া মামুন পদত্যাগ করেছেন। তিনি মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট মামুন আবদুল গাইয়ুমের মেয়ে। গাইয়ুম ৩০ বছর মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ছিলেন। গত মাসের শুরুর দিকে সরকার পতনের ষড়যন্ত্রের অভিযোগে মামুনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর পর থেকেই পদত্যাগের জন্য চাপের মুখে ছিলেন দুনিয়া। গত মঙ্গলবার সেই চাপের কাছেই নতিস্বীকার করেন তিনি।

ফেব্রুয়ারি মাসের শুরু থেকেই মালদ্বীপে অস্থিরতা শুরু হয়। সুপ্রিম কোর্ট এক রায়ে বেশ কয়েকজন কারান্তরীণ বিরোধী নেতাকে মুক্তির আদেশ দেন। এদের মুক্তি দেওয়া হলে পার্লামেন্টে ইয়ামিনের দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারাত। এরপর প্রধান বিচারপতিকে বরখাস্ত করে দেশে জরুরি অবস্থা জারি করেন তিনি। গ্রেপ্তার করা হয় মামুন আবদুল গাইয়ুম, প্রধান বিচারপতিসহ অনেককে। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য