kalerkantho


সন্ত্রাসে আর্থিক মদদদাতা দেশের তালিকা

পাকিস্তানের নাম ফের উঠেছে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



পাকিস্তানের নাম ফের উঠেছে

‘সন্ত্রাসে আর্থিক মদদদাতা’ দেশ হিসেবে পাকিস্তানের নাম ফের উঠেছে ‘ফিন্যানশিয়াল অ্যাকশন টাস্কফোর্সে’র (এফএটিএফ) নজরদারি তালিকায়। সরকারি এক কর্মকর্তা ও একজন কূটনীতিক শুক্রবার এ কথা জানিয়েছেন। এফএটিএফের পাকিস্তানকে তালিকাভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কূটনীতিক।

তালিকাভুক্তির আগে পাকিস্তানকে সন্ত্রাসে অর্থায়ন না করার তথ্য-প্রমাণ হাজির করে নজরদারি গোষ্ঠীকে আশ্বস্ত করার জন্য তিন মাস সময় দেওয়া হয়েছে বলে খবর বের হওয়ার কয়েক দিন পর নতুন এ খবর এলো। যুক্তরাষ্ট্র গত সপ্তাহে পাকিস্তানকে এফএটিএফ তালিকায় রাখতে জোর চেষ্টা চালিয়েছে। সন্ত্রাসে অর্থায়নের ব্যাপারে সংস্থাটির বিধিবিধান না মানলে পাকিস্তানকে কালো তালিকাভুক্ত করার জন্য প্রচার চালায় যুক্তরাষ্ট্র। এর সঙ্গে যোগ দেয় যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স ও জার্মানিও।

অন্যদিকে পাকিস্তানও তালিকাভুক্তি এড়াতে শেষ মুহৃর্তের প্রচার চালায়। কিন্তু তাতে কাজ হয়নি। শেষ পর্যন্ত বৃহস্পতিবার দিন শেষেই পাকিস্তানকে ফের তালিকাভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেয় এফএটিএফ। পাকিস্তানের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্ট এক কূটনীতিক এ কথা জানিয়েছেন।

এ সপ্তাহের শুরুর দিকে চীন, তুরস্ক ও উপসাগরীয় সহযোগিতা পরিষদ (জিসিসি) এ তালিকাভুক্তির বিরোধিতা করে পাকিস্তানকে বাঁচিয়েছে। কিন্তু বৃহস্পতিবার চীন ও জিসিসিও বিরোধিতা করা থেকে সরে আসে। এর পরই এফএটিএফের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

শুক্রবার এসংক্রান্ত ঘোষণা আসার কথা থাকলেও পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় খবরটি নিশ্চিত বা অস্বীকার কোনোটিই করেনি। আবার যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের কর্মকর্তারাও বলছেন, সিদ্ধান্তটি চূড়ান্ত কি না তা তাঁরা এখনই বলতে পারছেন না। পাকিস্তান এর আগে ২০১৫ সাল পর্যন্ত তিন বছর এফএটিএফের নজরদারি তালিকায় ছিল। এ সংস্থা বিভিন্ন দেশের সন্ত্রাসে অর্থায়ন ও মুদ্রাপাচারের ওপর নজর রাখে। সংস্থাটির তালিকায় ফের পাকিস্তানের নাম উঠলে দেশটির অর্থনীতি ধাক্কা খাবে এবং যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে টানাপড়েনের সম্পর্ক আরো অবনতির দিকে যাবে। সূত্র : বিডিনিউজ।


মন্তব্য