kalerkantho


টিলারসন বললেন

আর ‘মুলা’ নয়, উত্তর কোরিয়াকে আলোচনায় বসাতে লাঠি ব্যবহার করা হবে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



আর ‘মুলা’ নয়, উত্তর কোরিয়াকে আলোচনায় বসাতে লাঠি ব্যবহার করা হবে

উত্তর কোরিয়াকে আলোচনার টেবিলে আনতে আর ‘মুলা’ নয়, এবার বড় ধরনের ‘লাঠি’ ব্যবহার করা হবে। এ কথা বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন। তিনি বলেন, ওয়াশিংটন এখন শুনতে চাচ্ছে, উত্তর কোরিয়া প্রকৃত অর্থেই সরাসরি আলোচনার ব্যাপারে প্রস্তুত কি না।

দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পিয়ংইয়ংয়ের (উত্তর কোরিয়ার রাজধানী) বিরোধের মূল কারণ তাদের পরমাণু কর্মসূচি। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে উত্তেজনা চলছে। কিন্তু দক্ষিণ কোরিয়ায় এবারের শীতকালীন অলিম্পিকে উত্তর কোরিয়া অংশ নিলে সেই উত্তেজনা অনেকটা কমে আসে। সেই সঙ্গে দুই পক্ষের মধ্যে সরাসরি আলোচনার সম্ভাবনাও তৈরি হয়।

গতকাল রবিবার যুক্তরাষ্ট্রের সিবিএস টেলিভিশনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ সম্ভাবনা নিয়ে কথা বলেন টিলারসন। তিনি বলেন, ‘একজন কূটনীতিক হিসেবে আমার কাজ হলো, উত্তর কোরিয়াকে এটা জানানো যে আলোচনার দরজা খোলা আছে। আর তারা যা বলছে, আমি শুনছি। কিন্তু খুব একটা জবাব দিচ্ছি না। কারণ এই মুহূর্তে আসলে এ নিয়ে বলার মতো কিছু নেই। এ ক্ষেত্রে তাদের (পিয়ংইয়ং) বলতে হবে যে তারা আলোচনার জন্য প্রস্তুত আছে। তারাই আমাকে বলবে এবং আমি মনে করি, আলোচনার আগ্রহের কথা খুব পরিষ্কার করে বলতে হবে।’

টিলারসন জানান, পিয়ংইয়ংকে আলোচনার টেবিলে আনার জন্য কোনো ‘উৎসাহ’ দেওয়া হবে না। তিনি বলেন, “আমরা এখন আর কোনো ‘মুলা’ ব্যবহার করব না। আমরা এখন বড় ধরনের ‘লাঠি’ ব্যবহার করব। তাদের ওপর চাপ প্রয়োগের কৌশল অব্যাহত থাকবে।” উত্তর কোরিয়ার ওপর জাতিসংঘের একগুচ্ছ নিষেধাজ্ঞার দিকে ইঙ্গিত করেই মূলত এ মন্তব্য করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ১২ ফেব্রুয়ারি প্রায় একই ধরনের মন্তব্য করেন টিলারসন। তিনি বলেন, ‘আমরা একাধিকবার বলেছি, অর্থপূর্ণ একটি আলোচনায় বসার সিদ্ধান্ত উত্তর কোরিয়াকেই নিতে হবে। কারণ আলোচনার টেবিলের বিষয়বস্তু কী, তা তারা ভালো করেই জানে।’

সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য