kalerkantho


ইমরানের ২১ সদস্যের মন্ত্রিসভা ঘোষণা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২০ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



ইমরানের ২১ সদস্যের মন্ত্রিসভা ঘোষণা

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তাঁর ২১ সদস্যের মন্ত্রিসভার নাম ঘোষণা করেছেন। মন্ত্রিসভার অনেক সদস্যই এর আগে সাবেক সামরিক শাসক পারভেজ মোশাররফের আমলে নানা গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।

ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) মুখপাত্র ফাওয়াদ চৌধুরী জানান, ২১ সদস্যের মধ্যে ১৬ জন মন্ত্রী এবং অন্যরা ইমরানের উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করবেন। গত শনিবার পাকিস্তানের ২২তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই মন্ত্রিসভার সদস্যদের নাম ঘোষণা করা হয়। ফাওয়াদ চৌধুরী তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকেও মন্ত্রীদের নামের তালিকা প্রকাশ করেন। ওই তালিকায় দেখা যায়, প্রবীণ রাজনীতিক শাহ মাহমুদ কুরেশি পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেতে যাচ্ছেন। তিনি এখন দলের ভাইস প্রেসিডেন্ট। তিনি এর আগে পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) থেকে ২০০৮ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তাঁর সময়ই ভারতের অর্থনৈতিক রাজধানী মুম্বাই সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়। ২০০৮ সালে যখন পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তৈয়বার (এলইটি) ১০ সদস্য হামলা চালায়, তখন তিনি দিল্লিতে ছিলেন।

এ ছাড়া পারভেজ খট্টককে প্রতিরক্ষা এবং আসাদ উমরকে অর্থমন্ত্রীর পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। খট্টক ২০১৩-১৮ সাল পর্যন্ত খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এ ছাড়া আসাদ উমর সাবেক সেনা কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট জেনারেল মোহাম্মদ উমরের ছেলে। জেনারেল উমর ১৯৭১ সালে ভারতের সঙ্গে পাকিস্তানের যুদ্ধে লড়াই করেছিলেন।

নতুন মন্ত্রিসভা আজ সোমবারই প্রেসিডেন্টের বাসভবনে শপথ নেবে। ইমরানের মন্ত্রিসভার অন্তত ১২ সদস্য সাবেক প্রেসিডেন্ট পারভেজ মোশাররফের আমলে গুরুত্বপূর্ণ পদে কাজ করেছেন। মোশাররফের সাবেক মুখপাত্র, তাঁর অ্যাটর্নি এবং তাঁর মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ পদে এঁরা কাজ করেন। বাকিদের মধ্যে খট্টক ও কুরেশিসহ পাঁচজন পিপিপির মন্ত্রিসভায় দায়িত্ব পালন করেছেন। রাওয়ালপিন্ডির শেখ রশিদকে রেল মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এর আগে তিনি পারভেজ মোশাররফের মন্ত্রিসভায় একই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেছেন। মন্ত্রিসভায় তিন নারী রয়েছেন। তাঁরা হলেন শিরিন মাজারি, জুবায়দা জালাল ও ফাহমিদা মির্জা।

মন্ত্রী মর্যাদায় পাঁচজন উপদেষ্টাকে নিয়োগ দিয়েছেন ইমরান। তাঁদের মধ্যে সাবেক ব্যাংকার ইশরাত হুসেইন ও ব্যবসায়ী আবদুল রাজ্জাক দাউদ ও বাবর আনোয়ার রয়েছেন। পাকিস্তানের সংবিধান অনুসারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার আকার কোনোভাবেই জাতীয় পরিষদ ও সিনেটে ক্ষমতাসীন দলের মোট সদস্যসংখ্যার ১১ শতাংশের বেশি হওয়া চলবে না।

ইমরান এক সাদামাটা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে গত শনিবার প্রেসিডেন্ট হাউস আইওয়ান-ই-সদসে শপথ নেন। ২০০৮ সালের পর থেকে তিনি তৃতীয়বারের মতো গণতান্ত্রিক সরকার গঠন করলেন। এর আগে জেনারেল পারভেজ মোশাররফ ২০০১ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট ছিলেন। পাকিস্তান স্বাধীন হওয়ার পর থেকে অর্ধেকেরও বেশি সময় সামরিক শাসনের অধীনে ছিল। সূত্র : পিটিআই।



মন্তব্য