kalerkantho


বিচ্ছিন্নতাবাদীদের নিয়ন্ত্রণে ইয়েমেনের এডেন

প্রেসিডেন্ট ভবনে আটকা প্রধানমন্ত্রী

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ইয়েমেনে বিচ্ছিন্নতাবাদীরা দক্ষিণাঞ্চলীয় বন্দরনগরী এডেনের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর গতকাল বুধবার প্রেসিডেন্ট ভবন ঘিরে রাখে। প্রধানমন্ত্রী আহমেদ বিন দাঘেরসহ সরকারের উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তারা ওই ভবনে আটকা পড়েছেন। দেশটির প্রেসিডেন্ট আবেদরাববো হাদি সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে অবস্থান করছেন। এডেন আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত হাদি সরকারের কার্যত রাজধানী হিসেবে বিবেচিত।

সংযুক্ত আরব আমিরাত সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীরা পুরো শহরে টহল দিয়ে বেড়াচ্ছে। টানা তিন দিন ধরে চলা সংঘর্ষে অন্তত ৩৮ জন নিহত হয়েছে।

প্রসঙ্গত, প্রায় তিন বছর ধরেই সৌদি নেতৃত্বাধীন বাহিনী হুতি বিদ্রোহীদের লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালাচ্ছে। হুতি বিদ্রোহীরা দেশটির রাজধানী সানা দখল করে আছে প্রায় চার বছর ধরে। সানায় হুতিদের তাড়া খেয়েই এডেনে এসে আশ্রয় নেন হাদি। সে সময় থেকেই দক্ষিণাঞ্চলীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীরা হাদির সঙ্গে। এদের সাহায্য নিয়ে এই এলাকার ওপর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করেন হাদি।

সম্প্রতি দক্ষিণাঞ্চলীয় বিদ্রোহীদের সঙ্গে সম্পর্কে টানাপড়েন তৈরি হয় তাঁর। এডেনের সাবেক গভর্নর এইদারোস আল-জোবেইদিকে বরখাস্ত করেন হাদি। জোবেইদি দক্ষিণের আরো পাঁচ প্রদেশের গর্ভনরকে দিয়ে একটি ২৬ সদস্যের পরিষদ গঠন করেন। হাদিকে সরকারে কিছু পরিবর্তন আনতে বলে সাত দিনের সময় বেঁধে দেন। গত রবিবার সেই সময় শেষ হয়। এদিন জোবেইদি তাঁর সমর্থক দক্ষিণাঞ্চলীয় বিদ্রোহীদের সঙ্গে নিয়ে এডেনে সমাবেশ করতে চাইলে তাদের শহরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। সেখান থেকেই সংঘর্ষে সূত্রপাত।

তবে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে বিমান হামলা চালালেও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। বরং বিচ্ছিন্নতাবাদীদের প্রতি ধৈর্য ধরার এবং সরকারকে বিদ্রোহীদের দাবি বিবেচনা করার আহ্বান জানিয়েছে।

এদিকে জাতিসংঘ গতকাল সতর্কতা উচ্চারণ করে বলেছে, চলমান সংঘর্ষের কারণে এডেনের ৪০ হাজার মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে। পরিস্থিতির কারণে এডেন বন্দর থেকে ত্রাণ সরবরাহ করা সম্ভব হচ্ছে না বলে ত্রাণ কাজও স্থগিত করা হয়েছে।

সূত্র : এএফপি।

 


মন্তব্য