kalerkantho


ব্রিটিশ মন্ত্রিসভায় প্রথম ভারতীয় মুসলিম নুস

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২০ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



এই প্রথম ব্রিটেনের মন্ত্রিসভায় এলেন এক মুসলিম নারী মন্ত্রী। ভারতীয় বংশোদ্ভূত নুস ঘানি প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মের মন্ত্রিসভায় পেয়েছেন পরিবহন মন্ত্রণালয়ের পার্লামেন্টারি আন্ডারসেক্রেটারির দায়িত্ব।

নতুন বছরে টেরেসা মের মন্ত্রিসভার প্রথম রদবদলে ৪৫ বছর বয়সী নুসকে ওই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। প্রথম মুসলিম নারী মন্ত্রী হিসেবে নুস গতকাল শুক্রবার ভাষণ দিয়েছেন ব্রিটিশ পার্লামেন্টের হাউস অব কমন্সে। নুসের মা-বাবা ছিলেন পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের বাসিন্দা। সেখান থেকে তাঁরা চলে যান ব্রিটেনের বার্মিংহামে। নুসের জন্ম বার্মিংহামেই।

হাউস অব কমন্সে তাঁর প্রথম ভাষণটি দেওয়ার পরপরই টুইট করেন নুস। সেই টুইটে নুস লেখেন, ‘পরিবহনমন্ত্রী হিসেবে আমার ইনিংস শুরু করলাম। ব্রিটেনের প্রথম মুসলিম নারী মন্ত্রী হিসেবে ইতিহাসও গড়ে ফেললাম।’ কোনো দপ্তরের মন্ত্রীরা ব্রিটিশ পার্লামেন্টের হাউস অব কমন্সে যেখান থেকে তাঁদের ভাষণ দেন, নুস এ দিন সেই ‘ডিসপ্যাচ বক্স’-এ দাঁড়িয়েই তাঁর প্রথম ভাষণটি দিয়েছেন পার্লামেন্টে।

নতুন দায়িত্ব পেয়ে কেমন লাগছে, একটি বিবৃতিতে এ দিন তা শেয়ার করেছেন নুস। বলেছেন, ‘আমার কাছে এই দায়িত্বটা খুব এক্সাইটিং। চ্যালেঞ্জিংও। পরিবহন আমার খুব প্রিয় বিষয়। ওয়েলডেন থেকে এমপি হওয়ার জন্য প্রচারের সময় থেকেই আমি পরিবহনের উন্নতির দাবি জানিয়ে আসছি। মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করার পাশাপাশি আমি ওয়েলডেনের মানুষের প্রত্যাশা পূরণেও আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাব।’ এর আগে ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পার্লামেন্টারি প্রাইভেট সেক্রেটারির দায়িত্ব পালন করেন নুস। নুসকে স্বাগত জানাতে গিয়ে তাঁর দপ্তরের পূর্ণ মন্ত্রী পরিবহন সচিব ক্রিস গ্রেলিং বলেছেন, ‘নুসের প্রোমোশন প্রমাণ করল, কনজারভেটিভ পার্টিতে (‘টোরি’) সুযোগের অভাব হয় না। নুসের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ পেয়ে আমি গর্বিত।’ সূত্র : আনন্দবাজার।



মন্তব্য