kalerkantho


অলিম্পিকের ঠিক আগের দিন পিয়ংইয়ংয়ের সামরিক প্রদর্শনী!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



অলিম্পিকের ঠিক আগের দিন পিয়ংইয়ংয়ের সামরিক প্রদর্শনী!

দুই কোরিয়ার মধ্যকার উত্তেজনা গত কয়েক দিন ধরে উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। দক্ষিণ কোরিয়ায় আগামী মাসে অনুষ্ঠিতব্য শীতকালীন অলিম্পিকে অংশগ্রহণের সম্মতি জানিয়ে চলমান উত্তেজনা কিছুটা প্রশমন করেছিল পিয়ংইয়ং (উত্তর কোরিয়ার রাজধানী)। কিন্তু অলিম্পিক গেমসের ঠিক আগের দিন সামরিক প্রদর্শনীর সিদ্ধান্ত নিয়ে তারা আবার সেই উত্তেজনার পারদ বাড়িয়ে দিল।

এদিকে কোরিয়া ইস্যুতে রাশিয়ার বিরুদ্ধে অসহযোগিতামূলক মনোভাবের অভিযোগ তুলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

পিয়ংইয়ংয়ের পরমাণু কর্মসূচি ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে কয়েক মাস ধরেই উত্তেজনা চলছে দুই কোরিয়ার মধ্যে। এই উত্তেজনার শরিক দক্ষিণ কোরিয়ার সবচেয়ে বড় মিত্র যুক্তরাষ্ট্র। আর উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কা দা-কুমড়ার।

এ অবস্থায় গত সপ্তাহে উত্তেজনার বরফ কিছুটা গলতে থাকে। দুই বছরের বেশি সময় পর বৈঠকে বসেন দুই কোরিয়ার কর্মকর্তারা। বৈঠকে পিয়ংইয়ং জানায়, আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি সিউলে (দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী) শীতকালীন অলিম্পিকের যে আসর বসবে, তাতে তারা অংশগ্রহণ করবে। এমনকি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এক পতাকা হাতে নিয়ে হাঁটার ব্যাপারেও একমত হয়েছে দুই কোরিয়া।

কিন্তু গতকাল আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, অলিম্পিক গেমসের আগের দিন ৮ ফেব্রুয়ারি বড় ধরনের সামরিক প্রদর্শনীর সিদ্ধান্ত নিয়েছে পিয়ংইয়ং। দক্ষিণ কোরিয়ার সংবাদ সংস্থা—ইয়োনহাপ দাবি করেছে, পিয়ংইয়ংয়ের পার্শ্ববর্তী একটি বিমানঘাঁটিতে এ প্রদর্শনী হবে। উপলক্ষ উত্তর কোরিয়ার সামরিক বাহিনীর ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। তাতে প্রায় ১২ হাজার সেনা অংশগ্রহণ করবে। আর্টিলারির পাশাপাশি প্রদর্শনীতে থাকবে বিভিন্ন ধরনের অস্ত্রও।

উল্লেখ্য, নানা ধরনের উদ্‌যাপনকে উপলক্ষ বানিয়ে প্রায়ই সামরিক প্রদর্শনীর আয়োজন করে উত্তর কোরিয়া। এর আগে গত ১৫ এপ্রিল আন্তর্মহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষায় চালায় তারা। উপলক্ষ ছিল উত্তর কোরিয়ার প্রতিষ্ঠাতার ১০৫তম জন্মবার্ষিকী। এ ছাড়া সামরিক বাহিনীর ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গত বছরও বড় ধরনের সামরিক মহড়া চালায় তারা। সূত্র : এএফপি।



মন্তব্য