kalerkantho


যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াইয়ে ‘ভুলবশত’ ক্ষেপণাস্ত্র হামলার সতর্কতা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৫ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই অঙ্গরাজ্যের মানুষজন স্থানীয় সময় শনিবার সকালে মুঠোফোনে একটি খুদে বার্তা পায় যাতে বলা হয়, ‘ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের হুমকির মুখে হাওয়াই। এখনই নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যান। এটি কোনো অনুশীলন নয়।’ বার্তাটি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অঙ্গরাজ্যজুড়ে লোকজনের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে অবশ্য জানা যায়, ভুলবশত ওই সতর্কতা জারি করা হয়েছে। অঙ্গরাজ্যটির জরুরি ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ (ইএমএ) ওই সতর্কতা প্রত্যাহার করে নেওয়ার পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল কমিউনিকেশন কমিশন জানিয়েছে, কী কারণে এমন ঘটনা ঘটল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

জরুরি ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ জানায়, শনিবার সকালে ইএমএর শিফট পরিবর্তন হওয়ার সময় এক কর্মী ‘ভুলবশত একটি বাটনে’ চাপ দেন। এ সময় হাওয়াইয়ের প্রতিটি নাগরিকের মুঠোফোনে হামলার সতর্কতামূলক খুদে বার্তাটি পৌঁছে যায়। এতে আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে নাগরিকরা বাড়ির পাটাতনের নিচেসহ ম্যানহোলের ভেতরে আশ্রয় নিতে শুরু করে। পরে ভুল স্বীকার করে সংস্থাটির পক্ষ থেকে লোকজনকে আরেকটি খুদে বার্তা পাঠানো হয়। যেখানে, ‘হাওয়াইয়ে ক্ষেপণাস্ত্র অথবা বিপজ্জনক কোনো কিছুর হামলার আশঙ্কা নেই’ বলে উল্লেখ করা হয়।

ইএমএর পরিচালক ভার্ন মিয়াগি এই ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে সংবাদ সম্মেলেনে বলেন, ‘বেশ কয়েক মাস ধরেই আমরা ক্ষেপণাস্ত্র হামলার হুমকির ভেতরে রয়েছি। সে লক্ষ্যে নাগরিকদের আগে থেকেই আরো সতর্ক করে তোলার উদ্দেশ্যে কাজ করা হচ্ছে।’ তিনি বলেন, ‘আমরা একটি ভুল করেছি। আর সেটির যাতে পুনরাবৃত্তি না হয়, সেই লক্ষ্যে এখন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ অঙ্গরাজ্যটির গভর্নর ডেভিড ইজ বলেন, ‘শনিবারের সকালের ঘটনাটি আসলেই সবার কাছেই অপ্রত্যাশিত ছিল। বরং একটি বিব্রতকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ায় আমি নাগরিকদের কাছে ক্ষমা চাচ্ছি।’ সূত্র : এএফপি।



মন্তব্য