kalerkantho


এরদোয়ানকে জানিয়ে দিলেন ম্যাখোঁ

ইইউতে যোগ দেওয়ার সুযোগ নেই তুরস্কের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ইইউতে যোগ দেওয়ার সুযোগ নেই তুরস্কের

তুরস্কের ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে (ইইউ) যোগ দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ। তাদের সে স্বপ্ন পরিত্যাগ করা উচিত। গত শুক্রবার ফ্রান্স সফররত তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ানের সঙ্গে সাক্ষাতে ম্যাখোঁ এ কথা বলেন।

ম্যাখোঁ বলেন, ‘ইইউয়ের সদস্য হওয়ার কোনো সুযোগ তুরস্কের নেই। যদি আমি বলি, আমরা নতুন এক অধ্যায় তৈরি করতে পারি তাহলে এটা মিথ্যা বলা হবে। সত্যি কথা হচ্ছে, ইইউয়ের সঙ্গে সাম্প্রতিক সময়ের সম্পর্কের ঘটনায় সম্পর্ক উন্নয়ন হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।’

২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ানের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থানচেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর থেকে তুরস্কে ব্যাপক ধরপাকড় চলছে। মানবাধিকার লঙ্ঘন করে একদিকে বিপুলসংখ্যক কর্মকর্তা-কর্মচারীকে যেমন চাকরিচ্যুত করা হয়েছে, তেমনি হাজার হাজার নাগরিককে আটক করা হয়েছে। অভ্যুত্থানের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত এক লাখ ৪০ হাজার মানুষকে বরখাস্ত করা হয়েছে এবং ৫৫ হাজার বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা, নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য, বিচারক, শিক্ষক, সাংবাদিক, রাজনীতিবিদ ও মানবাধিকারকর্মীকে আটক করা হয়েছে। প্যারিসে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে ম্যাখোঁ জানান, তুরস্কে অভ্যুত্থানচেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর মানবাধিকার পরিস্থিতিই পাল্টে গেছে।

রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ানের প্রত্যাশা, ফ্রান্সের এই সফরের মাধ্যমে ইউরোপের সঙ্গে তাঁর বর্তমান শীতল সম্পর্ক উষ্ণতায় রূপ নেবে; কিন্তু নিজ দেশে ব্যাপক হারে মানবাধিকার লঙ্ঘনে তা আর সম্ভব হচ্ছে না। ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে যুক্ত হওয়ার একের পর এক চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ায় হতাশ এরদোয়ান বলেছেন, ‘ইইউতে যুক্ত হওয়ার জন্য একের পর এক আবেদন করে তুরস্ক পরিশ্রান্ত। ৫৪ বছর ধরে অপেক্ষা করতে করতে আমরা হতাশ।’

সংবাদ সম্মেলনে সিরিয়ায় সেনা পাঠানোর বিষয়ে এক সাংবাদিকের প্রশ্নে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান এরদোয়ান। তিনি পাল্টা ওই প্রশ্নকারী সাংবাদিক ব্যর্থ অভ্যুত্থানের সঙ্গে জড়িত ফেতুল্লাহ গুলেনের সমর্থক কি না, তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন। এরদোয়ান বলেন, ‘যখন আপনি প্রশ্ন করবেন তখন এ বিষয়ে সতর্ক হবেন এবং এ বিষয়ে আর কোনো প্রশ্ন করবেন না।’

এদিকে এরদোয়ানকে আমন্ত্রণ জানানোয় ফ্রান্সের নাগরিকদের মধ্যে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। ফ্রান্সের বামপন্থী দল, ট্রেড ইউনিয়ন, ডানপন্থী গ্রুপ ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করে। এ ছাড়া একদল কুর্দি বিক্ষোভকারী, যারা শুক্রবার এলিসি প্রাসাদের বাইরে বিক্ষোভ করার চেষ্টা করেছিল তাদের আটক করা হয়েছে। দ্য রিপোর্টার্স উইথআউট বর্ডারসের (আরএসএফ) প্যারিসে তুরস্কের দূতাবাসের সামনে প্রতিবাদ জানিয়েছে। তারা আটক সাংবাদিকদের প্রতিকৃতির স্টেনসিল নিয়েও প্রতিবাদ জানায়। সূত্র : এএফপি।



মন্তব্য