kalerkantho


এবার যুক্তরাষ্ট্রকে সহযোগিতা বন্ধের হুঁশিয়ারি পাকিস্তানের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



এবার যুক্তরাষ্ট্রকে সহযোগিতা বন্ধের হুঁশিয়ারি পাকিস্তানের

এবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি সহযোগিতা বন্ধের হুঁশিয়ারি দিয়েছে পাকিস্তান। দেশটি বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র যদি পাকিস্তানের সহযোগিতার মূল্য না দেয়, তাহলে তারা বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করবে। পাকিস্তানকে যুক্তরাষ্ট্রের ২৫ কোটি ডলারের সামরিক সহায়তা বন্ধ ঘোষণা এবং দেশটি সম্পর্কে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তাঁর প্রশাসনের বিরূপ মন্তব্যের প্রেক্ষাপটে গতকাল বুধবার এই হুঁশিয়ারি দিলেন জাতিসংঘে নিযুক্ত পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত মালিহা লোধি। এ ছাড়া পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর এই সিদ্ধান্ত ‘একেবারেই দুর্বোধ্য’ আখ্যায়িত করে সহায়তা বন্ধের হুমকি উড়িয়ে দিয়েছে। দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফও কঠোর ভাষায় এর জবাব দিয়েছেন।

গত সোমবার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প টুইটারের একটি পোস্টে পাকিস্তানকে মিথ্যাবাদী আখ্যায়িত করে বলেন, ১৫ বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে মিথ্যাচার ও শঠতা করছে পাকিস্তান। এই সময়ে সামরিক ও অন্যান্য সাহায্য হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের ৩০০ কোটি ডলার পাকিস্তান খরচ করেছে জঙ্গিবাদের তোষণে ও অস্ত্র সরবরাহের পেছনে। এর মাধ্যমে মার্কিন নেতাদের বোকা বানিয়ে তাদের ধোঁকা দিয়েছে। পরে ওই দিনই পাকিস্তানের জন্য সাড়ে ২৫ কোটি ডলারের সাময়িক সহায়তা বন্ধ ঘোষণা করে ট্রাম্প প্রশাসন। পরদিন জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হিলি ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্সও ট্রাম্পকে সমর্থন করে পাকিস্তান নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করেন।

পাকিস্তানকে সাড়ে ২৫ কোটি ডলারের সামরিক সহায়তা বন্ধ করার পরের দিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্স মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, গত বছর প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যে দক্ষিণ এশিয়া নীতি ঘোষণা করেন, এর আলোকেই ইসলামাবাদের বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

অন্যদিকে মঙ্গলবার জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হিলি জাতিসংঘ সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, অনেক বছর ধরেই পাকিস্তান ‘ডাবল গেম’ খেলে আসছে, যা ট্রাম্প প্রশাসনের কাছে গ্রহণযোগ্য নয়।

ট্রাম্প ও তাঁর প্রশাসনের এসব মন্তব্য ও সামরিক সহায়তা বন্ধ ঘোষণার পর বেজায় চটেছে পাকিস্তানের সামরিক ও বেসামরিক নেতৃত্ব। মঙ্গলবার রাতে এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসির নেতৃত্বে জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের সভা হয়। পরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এক বিবৃিতিতে ট্রাম্পের সহায়তা বন্ধের হুমকিকে উড়িয়ে দিয়ে এটিকে ‘একেবারেই দুর্বোধ্য’ এবং ট্রাম্পের মন্তব্যকে ‘মারাত্মক স্থল আক্রমণ’ বলে আখ্যায়িত করা হয়।  গতকাল বুধবার জাতিসংঘ সদর দপ্তরে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন জাতিসংঘে নিয়োজিত পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত মালিহা লোধি। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে পাকিস্তানের অবদান রয়েছে এবং দেশটি সর্বোচ্চ ত্যাগও স্বীকার করছে। পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আহসান ইকবাল বলেন, ‘৭০ ও ৮০-এর দশকে সোভিয়েত-আফগান যুদ্ধে নিজেদের স্বার্থেই যুক্তরাষ্ট্রে আফগানিস্তানে মৌলবাদীকরণ শুরু করেছিল। আর এখন তারা তাদের বিরুদ্ধেই লড়াই করছে। পাকিস্তান জাতি এখন সেই বীজের মূল্য দিচ্ছে, যা আপনারা একসময় রোপণ করেছিলেন।’

সূত্র : ডন, এএফপি।



মন্তব্য