kalerkantho


সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ

আট শতাধিক স্বাস্থ্যকর্মী নিহত

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



সিরিয়ার চলমান গৃহযুদ্ধে সাধারণ নাগরিকদের পাশাপাশি ব্যাপক হারে স্বাস্থ্যকর্মীরা হামলার শিকার হচ্ছে, প্রাণ হারাচ্ছে। হাসপাতালে বোমা হামলা, গুলিবর্ষণ, সরকারি সমর্থক বাহিনীর নির্যাতন ও ধরে নিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের ঘটনায় এ পর্যন্ত আট শর বেশি স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে ২৪৭ জন ডাক্তার এবং ১৭৬ জন নার্স।

ল্যানসেট মেডিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত তথ্যানুসারে সিরিয়ার সরকার এবং তার মিত্র রাশিয়া যুদ্ধে প্রতিহিংসার অস্ত্র হিসেবে স্বাস্থ্যকেন্দ্রকে বেছে নিয়েছে। জার্নালে আরো বলা হয়েছে, কয়েক শ স্বাস্থ্যকর্মীকে হত্যা করা হয়েছে, ব্যাপক সংখ্যক স্বাস্থ্যকর্মীকে বন্দি করা হয়েছে বা তাদের নির্যাতন করা হয়েছে এবং শত শত স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ইচ্ছাকৃত এবং কৌশলে আক্রমণ করা হয়েছে।

 বৈরুত, ব্রিটেন ও যুক্তরাষ্ট্রের পাশাপাশি সিরিয়ান আমেরিকান মেডিক্যাল সোসাইটি (এসএএমএস) এবং একটি বেসরকারি সংস্থা মাল্টি এইড প্রোগ্রামের বিশেষজ্ঞরা যৌথভাবে এ তথ্য সংগ্রহ করেছেন। তাঁদের হিসাবে ২০১১ সালের মার্চে লড়াই শুরু হওয়ার পর থেকে গত বছরের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৭৮২ জন স্বাস্থ্যকর্মী নিহত হয়েছে। তাদের মধ্যে ২৪৭ জন ডাক্তার (৩২ শতাংশ), ১৭৬ জন নার্স (২৩ শতাংশ) এবং ১৪৬ জন সহকারী (১৯ শতাংশ)। অন্য যারা নিহত হয়েছে তাদের মধ্যে রয়েছে ফার্মাসিস্ট, মেডিক্যাল স্টুডেন্ট, অ্যাম্বুল্যান্স চালক ও সহকারী। রিপোর্টে বলা হয়েছে, এসব মৃত্যুর অর্ধেকেরও বেশি (৫৫ শতাংশ) হাসপাতাল ও ক্লিনিকে বোমা হামলায় সংঘটিত হয়েছে। ২৩ শতাংশ মৃত্যু হয়েছে সরাসরি গুলিতে, নির্যাতনের শিকার হয়ে মারা যাওয়া স্বাস্থ্যকর্মীর সংখ্যা ১০১ জন, যা মোট মৃত্যুর ১৩ শতাংশ।

এ ছাড়া ৬১ জনের (৮ শতাংশ) মৃত্যদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। রিপোর্টে আরো বলা হয়েছে, গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে এ পর্যন্ত আরো অন্তত ৩২ জনের মৃত্যু হয়েছে। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য