kalerkantho


নারীবিহীন একটি দিন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১০ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



নারীবিহীন একটি দিন

যুক্তরাষ্ট্রের আলেক্সান্দ্রিয়া শহরটির আগাপাছতলা নারীশূন্য হয়ে যায়নি বটে, তবে শহরবাসী খানিকটা হলেও টের পেয়েছে, নারীবিহীন একটা দিন কেমন হতে পারে। এক দিনে তিন শতাধিক স্কুল শিক্ষিকা ছুটি নেওয়ায় শহরের সব সরকারি স্কুল বন্ধ ঘোষণা করতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ। ঘটনাটি ঘটেছে আন্তর্জাতিক নারী দিবসে।

রাজধানীর পাশের শহর আলেক্সান্দ্রিয়ায় গত বুধবারের জন্য ছুটির আবেদন করেছিলেন সরকারি স্কুলগুলোর তিন শতাধিক শিক্ষিকা। উপায়ান্তর না দেখে সরকারের সংশ্লিষ্ট কার্যালয় থেকে দুই দিন আগে জানানো হয়, তারা সব সরকারি স্কুল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যেসব শিক্ষার্থীর মা-বাবা উভয়ই কর্মজীবী, এ পরিস্থিতিতে তাঁরা ছুটি নেবেন নাকি অন্য কোনো উপায় বের করবেন, তাঁদের সে সিদ্ধান্ত গ্রহণের সুবিধার্থে কর্তৃপক্ষ দুই দিন আগে এ ঘোষণা দেয়। এ ধরনের মা-বাবাদের সংকট থেকে উদ্ধারের জন্য একটি স্কুল সাময়িক ডে কেয়ার ব্যবস্থাও চালু করে। তবে সংশ্লিষ্ট কোনো পক্ষই আন্তর্জাতিক নারী দিবসে নারীদের এ কর্মবিরতি গ্রহণকে নেতিবাচকভাবে নেয়নি। বরং সবাই এতে সমর্থন দিয়েছে।

ছোট্ট মেয়েটিকে ডে কেয়ার সেন্টারে রাখতে এসে এলিজাবেথ প্রক্টর জানান, এ কর্মসূচির প্রতি তাঁর দৃঢ় সমর্থন আছে। তিনি বলেন, ‘আমাদের ভূমিকা কতখানি আর আমাদের চারপাশের বিশ্বকে আমরা কতখানি প্রভাবিত করতে পারি, সেটা সত্যিই আপনারা দেখতে পাবেন।

’ আরেক কর্মজীবী মা নিকোল র‌্যাডশ শিক্ষিকাদের কর্মসূচির প্রতি সমর্থন তো জানিয়েছেনই, সেই সঙ্গে নিজেও ছুটি নিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘স্কুল বন্ধ রাখাটা কারো কারো কাছে যদিও বিড়ম্বনা মনে হতে পারে, আমি মনে করি, এ ধরনের উদ্যোগ ফলপ্রসূ করতে হলে সেটা অসুবিধাজনক হওয়াটাই দরকার। এতে আমাদের শক্তির প্রকাশ ঘটবে। ’

তাঁর মতে, স্কুল শিক্ষিকারা ছুটি নেওয়ায় সাময়িক অসুবিধা হয়তো সৃষ্টি হয়েছে, কিন্তু বিদ্যমান সমাজব্যবস্থা ও রাজনৈতিক আবহে নারীরা যে অসুবিধা আর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে, সেটার তুলনায় এ অসুবিধা অনেক খাটো।

রিপাবলিকান রাজনীতিক ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট পদে অভিষেকের পরপরই যারা উইমেনস মার্চের আয়োজন করেছিল, গত বুধবার নারীদের কর্মবিরতি আর কেনাকাটা বর্জনের আহ্বানেও তারাই ছিল। আর এতে মিলেছে ব্যাপক সাড়া। স্কুলগুলোতে এ হার ছিল সবচেয়ে বেশি। আলেক্সান্দ্রিয়ার সরকারি স্কুলগুলোর যোগাযোগ বিভাগের প্রধান হেলেন লাইওয়েড জানান, এক হাজার ৪০০ শিক্ষিকার মধ্যে ৩০০ জনের বেশি ছুটির আবেদন করেছেন। তিনি বলেন, ‘এটা আমাদের কাছে অপ্রত্যাশিত। এই প্রথমবারের মতো আমাদের আলেক্সান্দ্রিয়া শহরের সরকারি স্কুল বন্ধ রাখার ঘোষণা দিতে হয়েছে। একই দিনের জন্য এত বেশিসংখ্যক স্টাফের ব্যক্তিগত ছুটির আবেদনের ঘটনা এর আগের আমাদের দেখতে হয়নি। ’ তবে স্কুল বন্ধের ঘোষণার মাধ্যমে কর্তৃপক্ষ কোনো রাজনৈতিক বার্তা দিতে চাচ্ছে না, বরং শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা ও পাঠদানের ব্যাঘাতের বিষয়টি চিন্তা করে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে এই কর্মকর্তা জানান।

যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য শহরের চেয়ে আলেক্সান্দ্রিয়ায় আন্তর্জাতিক নারী দিবসে নারীর কর্মবিরতির আহ্বানে অনেক বেশি সাড়া পড়ে যাওয়ায় মোটেই বিস্মিত নন স্থানীয় বাসিন্দা র‌্যাডশ।

বাচ্চাদের সঙ্গে সময় কাটাবেন বলে ছুটি নিয়েছেন আরেক মা মরিন ম্যাকনুল্টি। ছুটি নেওয়ার যৌক্তিকতা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘এটা নারী অধিকার, আরো ভালো বেতন, আরো ভালো কর্মপরিবেশের দিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করার একটা পথ। আর আমি যেহেতু নার্স, তাই আমি নারীদের জন্য উন্নততর স্বাস্থ্যসেবার কথাটাও বলব। ’

সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য