kalerkantho


স্কুলের সামনে অভিবাসী বাবাকে আটকের ভিডিও তুলল মেয়ে

যুক্তরাষ্ট্রে ক্ষোভ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৫ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে এক ব্যক্তিকে মেয়ের স্কুলের সামনে থেকে ধরে নিয়ে যাওয়ার সময়ের একটি ভিডিও দেশটির মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে। মঙ্গলবার মার্কিন ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস এনফোর্সমেন্ট (আইসিই) সদস্যরা অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসের অভিযোগে রোমালু অ্যাভেলিকা-গনজালেজকে গ্রেপ্তার করে।

এ সময় ওই ব্যক্তির ১৩ বছর বয়সী মেয়ে ফাতেমা অ্যাভেলিকা নিজেদের গাড়ির পেছনের সিটে বসে ভিডিও চিত্রটি ধারণ করে। ভিডিওতে মেয়েটির কান্নার শব্দ শোনা যায়। ভিডিওতে দেখা যায়, লস অ্যাঞ্জেলেসের আবাসিক এলাকা হাইল্যান্ড পার্কের একটি স্কুলের সামনে থেকে দুই ফেডারেল কর্মকর্তা মেক্সিকোর নাগরিক গনজালেসকে তাঁর গাড়ির ভেতর থেকে টেনে নামিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। ওই দুই এজেন্টের ব্যাজে পুলিশ লেখা চিহ্নটি ভিডিওতে উঠে আসে। ওই কর্মকর্তারা আটক গনজালেসকে অন্য একটি গাড়িতে তুলে নিয়ে যায়।

ফাতেমার বড় বোন ব্রেন্ডা স্থানীয় সংবাদমাধ্যম এবিসি৭-কে বলেন, ‘এটা আমাদের পরিবারের জন্য মেনে নেওয়া খুবই কষ্টের বিষয়। ’ তিনি বলেন, ‘এমন একটি অবস্থার মধ্য দিয়ে কখনো আমাদের যেতে হবে তা আমরা কল্পনাও করতে পারিনি। এ ঘটনা আমাদের পরিবারকে ভেঙে দুই টুকরো করে দিল। ’  

মার্কিন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ওই ব্যক্তিকে ২০০৯ সালের একটি শাস্তিযোগ্য অপরাধের সঙ্গে যুক্ত থাকার দায়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সেই আইনে ২০১৪ সালে গনজালেসকে মেক্সিকোতে ফেরত পাঠানোরও নির্দেশ দেওয়া হয়। তবে দেশটির সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হচ্ছে, ২০ বছর আগে একটি ভুল রেজিস্ট্রেশন নম্বর-সংবলিত গাড়ি কেনার অপরাধে তাঁকে গ্রেপ্তার করেছে আইসিই।

আইসিইর কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গনজালেসের বিরুদ্ধে একটি মামলার শুনানি আদালতে বাকি রয়েছে। সে কারণে তাঁকে আটক করেছেন তাঁরা। এদিকে গনজালেসকে যাতে দেশে ফেরত পাঠানো না হয় সে জন্য তাঁর পরিবারের সদস্যরা ইতিমধ্যে একজন আইনজীবীর শরণাপন্ন হয়েছে।

ধারণা করা হচ্ছে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অবৈধ অভিবাসীদের যুক্তরাষ্ট্র থেকে বের করে দিতে যে নির্বাহী আদেশ দিয়েছিলেন তার পরিপেক্ষিতে এই গ্রেপ্তারের ঘটনা। এর আগেও দেশটির বিভিন্ন জায়গায় অবৈধ অভিবাসীদের খোঁজে অভিযান চালায় মার্কিন ফেডারেল এজেন্টরা। এতে বহুসংখ্যক অবৈধ অভিবাসী আটক হন। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য