kalerkantho


মসুলে রাসায়নিক অস্ত্র হামলা, আহত ১২

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৫ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



ইরাকের মসুলে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে ইরাকি বাহিনীর লড়াইয়ে প্রথমবারের মতো রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের খবর পাওয়া গেছে। এ হামলায় অসুস্থ ১২ জনকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ইরবিলের কাছে আন্তর্জাতিক রেডক্রস কমিটির (আইসিআরসি) একজন চিকিৎসক ঘটনাটি বিবিসিকে নিশ্চিত করে জানিয়েছেন।

রাসায়নিক এজেন্ট আক্রান্ত হয়ে মারাত্মক শ্বাসকষ্ট এবং ত্বকের সমস্যায় ভুগছে ১১ বছরের একটি ছেলে। আহত হয়েছে এক মাসের একটি শিশুও। হামলায় কোন ধরনের রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়েছে তা রেডক্রসের ওই চিকিৎসক বলতে পারেননি। তবে রাসায়নিক অস্ত্র হামলার ফলে যেসব লক্ষণ দেখা দেয় সেগুলোরই চিকিৎসা চলছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মসুলের লড়াইয়ে ইরাকি বাহিনী এরই মধ্যে আরেকটি এলাকা আইএসের কাছ থেকে দখলে নিয়েছে এবং শহরের কেন্দ্রস্থলের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। সেখানে আরো তীব্র লড়াই হবে বলেই আশঙ্কা করা হচ্ছে।

রেডক্রস জানিয়েছে, গত ৪৮ ঘণ্টার লড়াইয়ে রাসায়নিক অস্ত্র হামলায় আহত পাঁচ শিশু এবং দুই নারীকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তাদের চামড়ায় ফোসকা পড়াসহ চোখ লাল হয়ে গেছে; তারা বমি করছে এবং কাশছে।

পূর্ব মসুলে বাড়িঘরের ওপর মর্টারের গোলা হামলা এবং ঝাঁঝালো রাসায়নিকের গন্ধ পাওয়ার কথা জানিয়েছে স্থানীয় লোকজন। এ দুটি ঘটনাতেই লোকজন আহত হয়েছে।

হামলার জন্য কারা দায়ী তা এখনো জানা যায়নি। তবে মর্টার হামলা সাধারণত পশ্চিম মসুল থেকেই চালানো হয়—যে অঞ্চলটি এখনো আইএসের দখলে আছে। যুক্তরাষ্ট্র এর আগে একবার সতর্ক করে বলেছিল, আইএস লড়াইয়ে সালফার মাস্টার্ডযুক্ত অস্ত্র ব্যবহার করতে পারে। সূত্র : বিডিনিউজ।


মন্তব্য