kalerkantho


নাম হত্যায় আটক উত্তর কোরীয়কে মুক্তি দিল মালয়েশিয়া

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৪ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সত্ভাই কিম জং-নামকে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া একমাত্র উত্তর কোরীয় নাগরিককে গতকাল শুক্রবার মুক্তি দিয়েছে মালয়েশিয়া। যদিও বিষয়টি নিয়ে মালয়েশিয়ার পুলিশের মধ্যে এক ধরনের হতাশা কাজ করছে। পুলিশের বিশ্বাস, উত্তর কোরিয়ার এই নাগরিক এই হত্যার সঙ্গে জড়িত, তবে প্রমাণের অভাবে তাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হলো তারা।

ঘটনার পর এর সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ৪৭ বছর বয়সী রি জং-চলকে আটক করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদ করে তাঁকে অভিযুক্ত করার মতো কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি বলে জানান মালয়েশিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল মোহাম্মাদ আপান্দি আলী। এর এক দিন পর তাঁকে মুক্তি দেওয়া হলো। তবে তাঁর সঙ্গে মালয়েশিয়ায় ভ্রমণের বিষয়ে বৈধ কোনো কাগজপত্র পাওয়া যায়নি।

কোনো রাজনৈতিক বা কূটনৈতিক চাপের মুখে চলকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে কি না তা বলতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন মালয়েশিয়ার পুলিশ প্রধান খালিদ আবু বকর। তিনি বলেন, প্রমাণের অভাবের কারণেই তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

জং চল মালয়েশিয়ায় তিন বছর ধরে বসবাস করছেন। গত ১৩ ফেব্রুয়ারি কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরে কিম জং-নাম খুন হওয়ার পর ১৭ ফেব্রুয়ারি সময়সীমা পার হয়ে যাওয়া ওয়ার্ক পারমিট (৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭) নিয়ে ধরা পড়েন চল।

খুনের ঘটনায় তাঁর কী ভূমিকা ছিল তা স্পষ্ট নয়। নামের হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে বেশ কয়েকজন উত্তর কোরীয় নাগরিককে খুঁজছে মালয়েশিয়া। তাদের মধ্যে কয়েকজন ভিসামুক্ত প্রবেশের সুযোগে মালয়েশিয়ায় এসে নাম হত্যার পর দেশটি ছেড়ে পালিয়েছে।

জং-চল যে থানায় আটক ছিলেন সেখান থেকে কঠোর নিরাপত্তা বেষ্টনীর মধ্য দিয়ে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়। রিকে গতকাল উত্তর কোরিয়ায় পাঠিয়ে দেওয়ার কথা ছিল।

কুয়ালালামপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মারাত্মক বিষাক্ত পদার্থ প্রয়োগ করে কিম জং-নামকে হত্যার ঘটনায় এক ভিয়েতনামি ও এক ইন্দোনেশীয় নারীকে অভিযুক্ত করার দুদিন পর জং-চলকে ছেড়ে দেওয়া হলো। এদিকে কিমকে হত্যার ঘটনায় উত্তর কোরিয়ার নাগরিককে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ করায় পিয়ংইয়ং এর কঠোর প্রতিবাদ জানিয়ে বলেছে, মালয়েশিয়া তাদের শত্রুদের সঙ্গে চক্রান্তে লিপ্ত রয়েছে। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য