kalerkantho


মাদক নিয়ন্ত্রণে বিচারবহির্ভূত হত্যা

ফিলিপাইনের সমালোচনায় জাতিসংঘ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৩ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



মাদক চোরাচালানের বিরুদ্ধে অভিযানের নামে ফিলিপাইনের বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের সমালোচনা করেছে জাতিসংঘ। সংস্থাটির ‘ইন্টারন্যাশনাল নারকোটিকস কন্ট্রোল বোর্ড’ (আইএনসিবি) দুতার্তে সরকারের এ তৎপরতাকে ‘চরম মানবাধিকার লঙ্ঘন’ হিসেবেও মন্তব্য করেছেন।

গত বছর ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর দেশ থেকে মাদক নির্মূলের ঘোষণা দেন রদ্রিগো দুতার্তে। এ জন্য মাদক কারবারে জড়িতদের হত্যা করার কথাও বলেন তিনি। গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, দুতার্তে ক্ষমতায় আসার পর গত জুন থেকে এ পর্যন্ত পুলিশের হাতে দুই হাজার ২৫০ জন নিহত হয়েছে। এ ছাড়া অজ্ঞাত কারণে নিহত হয়েছে আরো চার হাজার মানুষ।

গতকাল বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের আইএনসিবির বার্ষিক প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘মাদক নিয়ন্ত্রণে যে আন্তর্জাতিক নীতিমালা রয়েছে, বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড সেই নীতিমালার সাংঘর্ষিক। প্রতিবেদনে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডকে ‘চরম মানবাধিকার লঙ্ঘন’ বলা হয়েছে।

দুতার্তে সরকার বিচারবহির্ভূত হত্যার পক্ষে যে অবস্থান নিয়েছে, আইএনসিবির প্রতিবেদনে সরাসরি সে বিষয়ে কিছু বলা হয়নি। শুধু বলা হয়েছে, মাদক নির্মূলে সর্বোচ্চ শাস্তি দেওয়া যেতে পারে। তবে আইএনসিবি এ ধরনের অপরাধে মৃত্যুদণ্ড সমর্থন করে না।

যদিও বিচারবহির্ভূত হত্যা আইনিভাবে পাকাপোক্ত করতে গত বুধবার রাতে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে নতুন একটি বিল পাস করাতে পেরেছে দুতার্তে সরকার।

প্রতিবেদনে নারী ও তরুণীদের মধ্যে মাদকের ক্রমবর্ধমান ব্যবহার নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। বলা হয়, বর্তমানে বিশ্বে যে পরিমাণ মাদক সেবনকারী রয়েছে, তার এক-তৃতীয়াংশই নারী ও তরুণী। যুক্তরাজ্য ও জার্মানির মতো দেশগুলোর উদাহরণ দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, ধনী দেশগুলোতে নারীদের মধ্যে ড্রাগসের ব্যবহার ক্রমেই বাড়ছে।


মন্তব্য