kalerkantho


‘জং উনের নির্দেশেই জং নামকে হত্যা’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উনের সত্ভাই কিম জং নামকে হত্যার পেছনে দেশটির পররাষ্ট্র ও নিরাপত্তা মন্ত্রণালয় জড়িত এবং জং উনের নির্দেশেই এটা ঘটেছে—গোয়েন্দা সূত্রের বরাত দিয়ে এমন মন্তব্য করেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার আইনপ্রণেতারা।

গত ১৩ ফেব্রুয়ারি মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে চীনের ম্যাকাওগামী ফ্লাইটের জন্য অপেক্ষমাণ জং নামের মুখমণ্ডলে বিষাক্ত উপাদান ছড়িয়ে দেয় দুই নারী। পরবর্তী ১৫-২০ মিনিটের মধ্যেই তাঁর মৃত্যু হয়। ফরেনসিক পরীক্ষার রিপোর্টে বলা হয়েছে, জং নামকে হত্যায় মারাত্মক বিষাক্ত ভিএক্স নার্ভ এজেন্ট ব্যবহার করা হয়েছে। সন্দেহভাজন দুই নারী এবং এক উত্তর কোরীয়সহ চারজন বর্তমানে মালয়েশীয় পুলিশের হাতে বন্দি। জং নামের লাশ কুয়ালালামপুরের একটি মর্গে রাখা হয়েছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো গতকাল সোমবার জানায়, দক্ষিণ কোরিয়ার গোয়েন্দাদের তথ্যের বরাত দিয়ে দেশটির এক আইনপ্রণেতা লি শেওল-উও সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘সন্দেহভাজন আটজনের মধ্যে চারজন (উত্তর কোরিয়ার) রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা মন্ত্রণালয় এবং দুজন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের। এ দুজনই মূল হত্যাকাণ্ডে অংশ নিয়েছে। আর এ জন্যই এটা রাষ্ট্র পরিচালিত সন্ত্রাস। রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সরাসরি এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। ’ দক্ষিণের আরেক আইনপ্রণেতা কিম বাইউং-কি টেলিভিশনে দেওয়া ভাষণে বলেন, ‘কিম জং নাম হত্যাকাণ্ডটা ছিল কিম জং উনের নির্দেশিত সুনিয়ন্ত্রিত সন্ত্রাস।

’ সূত্র : সিএনএন, রয়টার্স।


মন্তব্য