kalerkantho


মালয়েশিয়ার পুলিশ জানাল

জং-নামকে হত্যা করা হয়েছে রাসায়নিক অস্ত্রে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



জং-নামকে হত্যা করা হয়েছে রাসায়নিক অস্ত্রে

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সত্ভাই কিম জং-নামকে বিষাক্ত রাসায়নিক পদার্থ ‘ভিএক্স নার্ভ এজেন্ট’ দিয়ে হত্যা করা হয়েছে। মালয়েশিয়ার পুলিশ গতকাল শুক্রবার এ কথা জানিয়েছে।

বিষাক্ত এ পদার্থটি রাসায়নিক যুদ্ধে ব্যবহৃত হয়। জাতিসংঘের তালিকায় রাসায়নিকটি ‘গণবিধ্বংসী মারণাস্ত্র’ হিসেবে চিহ্নিত।

গত সপ্তাহে কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরের চেক ইন হলে এক নারী পেছন থেকে জাপটে ধরে জং-নামের মুখে ‘তরল জাতীয় কিছু’ মাখিয়ে দেওয়ার অল্প সময় পর হাসপাতালে মারা যান তিনি। জাপানের ফুজি টেলিভিশন গত সপ্তাহে ওই ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ করে। সেখানে এক নারীকে পেছন থেকে জং-নামের মুখ পেঁচিয়ে ধরতে দেখা যায়। মালয়েশিয়া পুলিশ গতকাল জানায়, কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরে কিম জং-নামের হত্যাকাণ্ডে গন্ধহীন, বিস্বাদ ও উচ্চমাত্রায় বিষাক্ত নার্ভ এজেন্ট ভিএক্স ব্যবহার করা হয়। দক্ষিণ কোরিয়ার বিশেষজ্ঞরা জানান, উত্তর কোরিয়ার কাছে ভিক্সসহ কমপক্ষে পাঁচ হাজার মেট্রিক টনের ব্যাপক রাসায়নিক অস্ত্রভাণ্ডার রয়েছে।

মালয়েশিয়া পুলিশ জানায়, গত ১৩ ফেব্রুয়ারি কুয়ালালামপুরের বিমানবন্দরে ম্যাকাওগামী ফ্লাইটের জন্য অপেক্ষা করছিলেন জং-নাম। এ সময় দুই নারী তাঁর মুখমণ্ডলে বিষাক্ত উপাদান স্প্রে করে।

এ কারণেই তাঁর মৃত্যু হয়।

পুলিশ বলছে, জং-নামের চোখ ও মুখমণ্ডল থেকে সংগৃহীত নমুনায় ‘ভিএক্স নার্ভ এজেন্ট’ নামের উচ্চমাত্রার বিষাক্ত রাসায়নিকের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। মালয়েশিয়ার পুলিশপ্রধান খালিদ আবু বকর এক বিবৃতিতে বলেছেন, জং-নামের মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হতে সংগৃহীত অন্যান্য নমুনাও পরীক্ষা করা হচ্ছে।

উত্তর কোরিয়ার অনুরোধ সত্ত্বেও জং-নামের লাশ ফেরত দেয়নি মালয়েশিয়া। তারা বলছে, নিহত ব্যক্তির পরিবারের কেউ ডিএনএ নমুনা দিয়ে শনাক্ত করার পরই লাশ নিতে পারবে।

জং-নামের লাশ কুয়ালালামপুরের একটি হাসপাতালের মর্গে রয়েছে। সূত্র : এএফপি, বিবিসি।


মন্তব্য