kalerkantho


‘আমার দেশ ছাড়’ বলে ভারতীয়কে গুলি করে হত্যা যুক্তরাষ্ট্রে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



‘আমার দেশ ছাড়’ বলে ভারতীয়কে গুলি করে হত্যা যুক্তরাষ্ট্রে

‘আমার দেশ ছেড়ে চলে যাও’ বলে একের পর এক গুলি চালানো হলো ভারতীয় এক প্রকৌশলীর বুকে। সঙ্গে সঙ্গে মারা গেলেন শ্রীনিবাস কুচিভোতলা নামের ওই প্রকৌশলী।

এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন এক ভারতীয়সহ দুইজন। ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের কানসাসে।

জানা গেছে, ৩২ বছর বয়সী শ্রীনিবাস ভারতের হায়দরাবাদের বাসিন্দা। কানসাসের গার্মিন ইন্টারন্যাশনাল কম্পানিতে কাজ করতেন তিনি। বুধবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টার দিকে অলোক মাদাসানি নামের এক বন্ধুর সঙ্গে কানসাসের ওলাথের এক পানশালায় যান তিনি। অলোকও পেশায় ইঞ্জিনিয়ার। হঠাৎই এক ব্যক্তি পানশালায় ঢুকে তাঁদের লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়তে শুরু করে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ‘মধ্যপ্রাচ্যের মানুষ আমার দেশ থেকে বেরিয়ে যাও’ বলে বারবার চিত্কার করছিলেন ওই ব্যক্তি।

পুলিশ জানায়, গুলিবষর্ণকারী ওই ব্যক্তির নাম অ্যাডাম পুরিনটন (৫১)।

তিনি মার্কিন নৌবাহিনীর সাবেক সদস্য।   পুরিনটনের ছোড়া গুলিতেই মৃত্যু হয় শ্রীনিবাসের। গুরুতর জখম হন অলোকও। তাঁদের বাঁচাতে এসে গুলিবিদ্ধ হন স্থানীয় বাসিন্দা ল্যান গ্রিলট। অলোক ও গ্রিলটকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার পাঁচ ঘণ্টা পর মিসৌরি এলাকার অন্য একটি পানশালা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় পুরিনটনকে। মিসৌরির এই পানশালার এক কর্মী পুলিশকে বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের দুই ব্যক্তিকে গুলি করার কথা স্বীকার করেছেন পুরিনটন। ভারতীয় দূতাবাসের দুই সদস্যের একটি প্রতিনিধিদলের চেষ্টায় শ্রীনিবাসের দেহ ভারতে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় টুইট করে শ্রীনিবাসের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্প শপথ নেওয়ার পর থেকে অ-মার্কিনদের প্রতি একের পর এক হামলার ঘটনা ঘটছে। নয়া অভিবাসন নীতি আদালতে ধাক্কা খেলেও পিছিয়ে আসার সম্ভাবনাও দেখা যাচ্ছে না ট্রাম্পের মধ্যে। এ ঘটনার সঙ্গে চলতি অভিবাসন বিতর্কের যোগ রয়েছে বলে মনে করছে অনেকে।

হায়দরাবাদের জওহরলাল নেহেরু টেকনোলজিক্যাল ইউনিভার্সিটি থেকে স্নাতক ডিগ্রি নেন শ্রীনিবাস। এরপর ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে উচ্চশিক্ষার জন্য পাড়ি দিয়েছিলেন টেক্সাসে। সেখানকার পাঠ চুকিয়ে ২০১৪ সালে কানসাসের জিপিএস কম্পানিতে কাজে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।


মন্তব্য