kalerkantho


আস্থা ভোটের আগে শশিকলাসহ মুখ্যমন্ত্রী ছাঁটাই!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যে ক্ষমতার দ্বন্দ্বে প্রতিদিনই নাটকীয় মোড় নিচ্ছে। আস্থা ভোটের ঠিক এক দিন আগে ফের চাপের মুখে পড়লেন মুখ্য মন্ত্রী এদাপ্পাদি কে পালানিস্বামী। গতকাল শুক্রবার পালানিস্বামী, তাঁর দল এআইএডিএমকের সাধারণ সম্পাদক ভি কে শশিকলাসহ বেশ কয়েকজন নেতাকে দল থেকে বরখাস্ত করলেন দলের সাবেক প্রেসিডিয়াম চেয়ারম্যান ই মধুসূদনন। গত সপ্তাহেই মধুসূদননের প্রাথমিক সদস্যপদ বাতিল করেছিলেন শশিকলা। মধুসূদনন সাবেক মুখ্য মন্ত্রী পন্নিরসেলভম শিবিরের লোক।

এদিকে রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল ডিএমকে জানিয়েছে, আজ আস্থা ভোটে তারা পালানিস্বামীর মন্ত্রিসভার বিরোধিতা করবে। দলটির নেতা এম কে স্ট্যালিন এ কথা জানিয়েছেন।

দুর্নীতি মামলায় চার বছরের কারাদণ্ডাদেশ মাথায় নিয়ে গত বুধবার জেলে ঢোকেন শশিকলা। বৃহস্পতিবার তাঁর শিবিরের প্রার্থী সাবেক সড়কমন্ত্রী পালানিস্বামী রাজ্যপালের ডাকে সাড়া দিয়ে নতুন মুখ্য মন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন। আজ শনিবার সকাল ১১টা নাগাদ বিধানসভায় আস্থা ভোটে জিততে হবে তাঁর নয়া মন্ত্রিসভাকে। শশিকলা শিবিরের দাবি, তাদের পক্ষে রয়েছেন মোট ১২৪ জন বিধায়ক।

গত এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে তাঁদের মধ্যে ১০০ জন কুভাথুরের গোল্ডেন বে রিসোর্টে রয়েছেন। আস্থা ভোট পর্ব পর্যন্ত তাঁরা এখানেই ঘাঁটি বেঁধে অপেক্ষার প্রহর গুনছেন বলে জানা গেছে।

শশিকলা ও পন্নিরসেলভমের মধ্যে ক্ষমতার দ্বন্দ্ব প্রকাশ্য রূপ পেলে মাত্র এক সপ্তাহ আগে দলীয় নীতি অমান্য এবং দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করার অভিযোগে মধুসূদননকে প্রেসিডিয়াম পদ থেকে বহিষ্কার করেছিলেন শশিকলা। তাঁর জায়গায় দলের বর্ষীয়ান নেতা কে এ সেঙ্গোট্টাইয়ানকে বসানো হয়। মধুসূদননের দলীয় প্রাথমিক সদ্যপদও খারিজ করেন শশিকলা। কিন্তু দুর্নীতি মামলায় সুপ্রিম কোর্টের রায় ঘোষিত হওয়ার জেরে আপাতত বেঙ্গালুরুর জেলে ঠাঁই হয়েছে তাঁর। এ পরিস্থিতিতে পাল্টা চাল চালতে দেরি করেনি প্রতিপক্ষ পন্নিরসেলভম শিবির। রয়াপেট্টার প্রধান দপ্তর থেকে গতকাল এআইএডিএমকের লেটারহেডে ছাপানো চিঠিতে শশিকলা, তাঁর ভাইপো ও সহকারী টি টি ভি দিনকরণ এবং আরেক আত্মীয় এস ভেঙ্কটেশের দলীয় প্রাথমিক সদস্যপদ বাতিল করেন। একই সঙ্গে দলীয় সদস্যদের ওই তিনজনের সঙ্গে কোনো রকম সম্পর্ক রাখার ব্যাপারেও নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। এর কয়েক ঘণ্টা পর আরেক নির্দেশে মুখ্য মন্ত্রী পালানিস্বামী, লোকসভার ডেপুটি স্পিকার এম থাম্বিদুরাই, মন্ত্রী দিনদিগুল সি শ্রীনিবাসন, পি থাঙ্গামানি, সি ভি শানমুগাম, কে রাজু, আর বি উদয় কুমার এবং রাজ্যসভা এমপি এ নবনিথাকৃষ্ণনের পার্টির প্রাথমিক সদস্যপদ বাতিল করেন। দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার অভিযোগে তাঁদের বিরুদ্ধে এ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলা হয়।

উল্লেখ্য, দলে নিজের ক্ষমতা পাকাপোক্ত রাখতে নিজের বহিষ্কৃত ভাইপোকে জেলে যাওয়ার এক দিন আগে দলে ফিরিয়ে সহকারীর দায়িত্বে বসিয়ে যান শশিকলা।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।


মন্তব্য