kalerkantho


‘দামাদাম মাস্ত কালান্দার’ থামিয়ে দেওয়ার চেষ্টা আইএসের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



‘দামাদাম মাস্ত কালান্দার’ থামিয়ে দেওয়ার চেষ্টা আইএসের

জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) তাদের নৃশংসতার সর্বশেষ নজির রেখেছে ‘মাস্ত কালান্দার’ খ্যাত পাকিস্তানের লাল শাহবাজ কালান্দারের মাজারের ওপর, যাঁকে ঘিরে রচিত কাওয়ালি ‘দামাদাম মাস্ত কালান্দার’ এ উপমহাদেশের সংগীতাঙ্গনে অত্যন্ত বিখ্যাত।

পাকিস্তানের অন্যতম বিখ্যাত ও গুরুত্বপূর্ণ মাজারগুলোর একটি হলো লাল শাহবাজ কালান্দারের মাজার। সিন্ধু প্রদেশের শেহওয়ান শরিফে অবস্থিত এ মাজারে প্রতি বৃহস্পতিবার বহু ভক্তের সমাগম হয়। জনসমাগমের দিন মাথায় রেখেই গত বৃহস্পতিবার মাজারের খোলা প্রাঙ্গণে নারীদের জন্য সংরক্ষিত স্থানে আত্মঘাতী বোমা হামলা চালায় আইএস। নিজেদের মুখপত্র হিসেবে প্রচারিত আমাক সংবাদমাধ্যমে তাদের খোরাসান প্রদেশের শাখা বিবৃতি দিয়ে এ হামলার দায় স্বীকার করে।

একাধারে সুফি সাধক, কবি ও দার্শনিক হিসেবে পরিচিত লাল শাহবাজ কালান্দারের আসল নাম সৈয়দ উসমান মারওয়ান্দি। আফগানিস্তানের ইতিহাসবিখ্যাত মারওয়ান্দ শহরে দ্বাদশ শতকের কোনো একসময় তাঁর জন্ম। পরে তাঁর পরিবার ভারতীয় উপমহাদেশে চলে আসে। দ্বাদশ শতকের শেষ ভাগে সিন্ধু প্রদেশে তাঁর উপস্থিতির তথ্য পাওয়া যায় ইতিহাসের বিভিন্ন সূত্রে। এখানে তিনি ইসলাম প্রচার করেন। তিনি হজরত আলী (রা.)-এর অনুসারী ছিলেন বলে জানা যায়।

তাঁর কবিতায়ও হজরত আলী (রা.)-এর বন্দনা দেখা যায়। সিন্ধুর শেহওয়ান শরিফেই তাঁকে সমাহিত করা হয়। তাঁর কবর ঘিরে মাজার গড়ে তোলা হয় চতুর্দশ শতকে।

শাহবাজ কালান্দারের ভক্তরা বিভিন্ন সময় তাঁকে ঘিরে বহু স্তবক রচনা করে গেছে, যেগুলো কাওয়ালি হিসেবে গাওয়া হয়। এর মধ্যে অন্যতম একটি কাওয়ালি হলো ‘দামাদাম মাস্ত কালান্দার’। পাঞ্জাবি আধ্যাত্মিক এই কাওয়ালি এক দিনে রচিত হয়নি। ষষ্ঠদশ থেকে সপ্তদশ শতকের মধ্যবর্তী সময়ে এ গানে সুর ও কথা সংযোজনে অবদান রাখে শাহবাজ কালান্দারের বহু অনুসারী। তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন হজরত আমির খসরু এবং বাবা বুল্লে শাহ।

মুসলমানদের পাশাপাশি হিন্দুদের মধ্যেও শাহবাজ কালান্দারের ভক্ত রয়েছে। হিন্দু ভক্তরা তাঁকে বরুণ দেবের অবতার বলে বিশ্বাস করে এবং তাঁকে ‘ঝুলে লাল’ নামে অভিহিত করে। সুফিবাদ নিয়ে প্রচুর লেখালেখি করা সাদিয়া দেহলভি বলেন, ‘হিন্দু ও মুসলিম উভয় সম্প্রদায়ের কাছেই তিনি (শাহবাজ কালান্দার) শ্রদ্ধার পাত্র। ’ সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, নিউজ এইটিন।


মন্তব্য