kalerkantho


ইসরায়েলে ‘মাইকে আজান’ দেওয়া বন্ধে বিল

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ইসরায়েলে উপাসনালয়ে মাইক বা স্পিকারের ব্যবহার নিষিদ্ধ করতে একটি আইনের খসড়া অনুমোদন করেছে বিচার মন্ত্রণালয়। মুসলমানরা বলছেন, তাদের আজান দেওয়া বন্ধ করতেই এই আইন করা হচ্ছে।

গত রবিবার ‘উপাসনালয় থেকে মাইকের মাধ্যমে উচ্চশব্দ প্রতিরোধ বিল’ শীর্ষক আইনের খসড়া প্রস্তাব মন্ত্রণালয়ের বৈঠকে উপস্থাপন করা হলে তা কণ্ঠ ভোটে পাস হয়ে যায়।

খসড়াটি এখন সরকারি বিল হিসেবে পার্লামেন্টে  উপস্থাপন করা হবে।

প্রস্তাবিত আইনে অবশ্য কোনো নির্দিষ্ট ধর্মের উল্লেখ করা হয়নি। বিলটি আনার পর মুসলমানদের বিরোধিতার কারণে এটি ‘মুয়াজ্জিন আইন’ হিসেবে পরিচিতি পায়। ইসরায়েলেও সুউচ্চ মিনারে স্থাপন করা শক্তিশালী স্পিকারে আজান দেওয়া হয়।

এর আগে এই বিলের খসড়াটি বাতিল করা হয়, যেখানে সূর্য ডোবার পর উপাসনালয়গুলোতে মাইক ব্যবহার নিষিদ্ধে প্রস্তাব ছিল। কিন্তু এতে প্রতি শুক্রবার সন্ধ্যার পর ইহুদিদের সাবাথ প্রার্থনার জন্য সাইরেন বাজানোও নিষিদ্ধ হয়ে যেত। পরে এটি সংশোধন করে রাত ১১টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত উপাসনালয়গুলোতে সব ধরনের মাইক বা স্পিকারের ব্যবহার নিষিদ্ধের প্রস্তাব করা হয়েছে। এর ফলে মুসলমানদের দিনের প্রথম নামাজ ফজরের ওয়াক্তে মাইকে আজান দেওয়া নিষিদ্ধ হয়ে যাবে।

আরব বংশোদ্ভূত এমপি আয়ামন ওদেহ এ সম্পর্কে বলেন, ‘এই আইন মানুষের জীবনের শব্দদূষণের সঙ্গে সম্পর্কিত নয়। এটি সংখ্যালঘুদের প্রতি একটি বর্ণবাদী উসকানি। ’

সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য