kalerkantho


নিউজিল্যান্ডের সৈকতে নতুন করে আটকা পড়েছে ২০০ তিমি

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



নিউজিল্যান্ডের এক সৈকতে দুই দিন আগে আটকা পড়া তিমিগুলোকে সাগরে ভাসিয়ে দিতে না দিতেই নতুন করে ২০০ তিমি একই সৈকতে আটকা পড়েছে। গতকাল শনিবার এসব তিমি সাঁতরে এসে সৈকতে আটকে যায়। উদ্ধারকর্মীরা দিনভর সেগুলোকে সাগরে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা চালালেও আঁধার নেমে আসার পর তারা থামতে বাধ্য হয়।

দেশটির সাউথ আইল্যান্ডের উত্তর-পশ্চিমে গোল্ডেন বে এলাকায় ফেয়ারওয়েল স্পিট সৈকতে গত শুক্রবার ভোররাতে ৪১৬টি তিমি আটকা পড়ে। উদ্ধারকর্মীরা সেখানে পৌঁছানোর আগেই তিন শতাধিক তিমি মারা পড়ে। বাকি ১০০টি তিমিকে অব্যাহত চেষ্টায় জোয়ারের পানিতে ভাসিয়ে দেয় উদ্ধারকর্মীরা। কিন্তু সেগুলো গভীর সাগরে যাওয়ার আগেই আরো কিছু তিমির সঙ্গে মিলে গতকাল আবার সৈকতে ফিরে আসে। এবার দলে ছিল ২০০ তিমি। গত এক দশকে কমপক্ষে ৯ বার ফেয়ারওয়েল স্পিট সৈকতে বিপুলসংখ্যক তিমি আটকা পড়ার ঘটনা ঘটেছে।

ডিপার্টমেন্ট অব কনজারভেশনের (ডিওসি) মুখপাত্র হার্ব ক্রিস্টোফার জানান, উদ্ধারকর্মীরা সবাই মিলে মানববন্ধন তৈরি করেন। হাঙরের ভয় উপেক্ষা করে তাঁরা কাদাপানি মাড়িয়ে গলাপানিতে নেমে যান।

তার পরও তিমিগুলোর সৈকতে আসা ঠেকানো যায়নি। তিমিগুলো বারবার ফিরে আসতে থাকলে উদ্ধারপ্রক্রিয়া বিলম্বিত হবে এবং সেগুলোর বাঁচার সম্ভাবনা ক্ষীণ হয়ে আসবে বলে জানায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

কেন তিমিগুলো বারবার সৈকতে চলে আসছে, সে সম্পর্কে বিশেষজ্ঞরা নিশ্চিত হতে পারেননি। পরিবেশবাদী সংস্থা প্রজেক্ট জোনাহর জেনারেল ম্যানেজার ড্যারেন গ্রোভার বলেন, ‘তিমিগুলো কেন তীরে চলে এসেছে, সেটা আমরা জানি না। ’ তবে তাঁর ধারণা, কোনো তিমির ডাক পেয়ে বাকিরা হয়তো চলে এসেছে এবং সবাই সৈকতে আটকে গেছে। বিশেষজ্ঞদের মতে বিপদগ্রস্ত তিমি সংকেত পাঠালে তাতে সাড়া দিয়ে ছুটে আসা তিমির পুরো দলটাই কোনোভাবে আটকে যাওয়ার ঘটনা ঘটতে পারে।   সূত্র : এএফপি, বিবিসি।


মন্তব্য