kalerkantho


মালদ্বীপের নির্বাসিত নেতা নাশিদ নির্বাচনে দাঁড়াতে চান

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



মালদ্বীপের ক্ষমতাচ্যুত ও নির্বাসিত নেতা মোহাম্মদ নাশিদ ২০১৮ সালে দেশটিতে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন। এই সপ্তাহে শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয় মালদ্বিভিয়ান ডেমোক্র্যাট পার্টির (এমডিপি) নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে তিনি এই সিদ্ধান্তের কথা জানান।

দলটির অনেক নেতাই বর্তমানে শ্রীলঙ্কায় নির্বাসিত জীবন কাটাচ্ছেন। বৈঠকে নাশিদ বলেন, ‘মালদ্বীপে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নিতে এমডিপি অবশ্যই কাউকে না কাউকে মনোনয়ন দেবে। তবে আমি আশা করছি, সে ক্ষেত্রে দল আমাকেই প্রার্থী হিসেবে বেছে নেবে। ’

মালদ্বীপের সংবিধান অনুযায়ী, ২০১৫ সালের ফৌজদারি মামলায় দণ্ডিত হওয়ার কারণে নির্বাসিত এই নেতা প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না। সন্ত্রাসের অভিযোগে করা ওই মামলায় তাঁকে ১৩ বছরের দণ্ড দেন আদালত। তবে আন্তর্জাতিক চাপের কারণে তাঁর বিরুদ্ধে থাকা প্রতিবন্ধকতা সরকার প্রত্যাহার করবে বলে আশা করেন নাশিদ। তিনি দেশে ফিরলে গ্রেপ্তার হওয়ার সম্ভাবনা খুবই বেশি। দেশের বাইরে থেকে তিনি প্রার্থিতার জন্য দলীয় নির্বাচনে লড়াই করতে পারলেও নির্বাচনে লড়তে হলে তাঁকে দেশে ফিরতেই হবে।

২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে চিকিৎসার জন্য দেশ ছেড়ে ব্রিটেনে যান তিনি।

এর পর থেকে সেখানেই রাজনৈতিক আশ্রয়ে আছেন তিনি। জাতিসংঘের একটি প্যানেল নাশিদের বিরুদ্ধে ১৩ বছরের দণ্ডাদেশকে অবৈধ ঘোষণা করে।

নাশিদ ছিলেন মালদ্বীপের প্রথম গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট। ২০০৮ সালে নির্বাচনে তিনি দেশটির তিন দশকের শাসক মামুন আবদুল গাইউমকে হারিয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। সূত্র : এএফপি।  


মন্তব্য