kalerkantho


পুতিনকে শ্রদ্ধা করি : ট্রাম্প

রুশ প্রেসিডেন্টের পক্ষ নিতে গিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বললেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র কি নিষ্পাপ?’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



পুতিনকে শ্রদ্ধা করি : ট্রাম্প

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের প্রতি আবারও নিজের ‘ভালো লাগা’ প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গত শনিবার ফক্স নিউজে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে ট্রাম্প জানিয়েছেন, তিনি পুতিনকে শ্রদ্ধা করেন। এমনকি পুতিনের সাফাই গাইতে গিয়ে যুক্তরাষ্ট্রকেও খুনি রাষ্ট্রের কাতারে ফেলেছেন তিনি।

ট্রাম্পের সাক্ষাত্কারটি নিয়েছেন ফক্স নিউজের ও’রেইলি। গত শনিবার সাক্ষাত্কারটির একটি অংশ প্রচারিত হয়। গতকাল রবিবার পুরোটা প্রচার হওয়ার কথা।

সাক্ষাত্কারে রেইলি প্রশ্ন করেন, ‘আপনি (ট্রাম্প) কি পুতিনকে শ্রদ্ধা করেন?’ জবাবে ট্রাম্প বলেন, ‘আমি পুতিনকে শ্রদ্ধা করি। আমি আরো অনেককে শ্রদ্ধা করি। তার মানে এই নয় যে আমি পুরোপুরি তাঁদের অনুসরণ করি। ’ ট্রাম্প বলতে থাকেন, ‘পুতিনকে রাশিয়ার অধিকাংশ মানুষ নেতা মানে। আমি বলব, পুতিনকে পরিত্যাগ না করে বরং তাঁর সঙ্গে কাজ করাটা হবে অপেক্ষাকৃত ভালো সিদ্ধান্ত।

ট্রাম্প বলেন, ‘রাশিয়া যদি আইএস কিংবা অন্যান্য জঙ্গিগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমাদের সহায়তা করে, তবে বিষয়টি অবশ্যই ইতিবাচকভাবে নিতে হবে। ’

ও’রেইলি বলেন, ‘পুতিন তো একজন খুনি!’ জবাবে ট্রাম্প বলেন, ‘চারপাশে অনেক খুনি আছে। আমরা নিজ দেশেও অনেক খুনি দেখেছি। আপনি কি মনে করেন, যুক্তরাষ্ট্র নিষ্পাপ?’

মার্কিন কোনো প্রেসিডেন্টের মুখে রুশ প্রেসিডেন্টের প্রশংসার নজির খুব একটা নেই। তবে ট্রাম্প এর আগেও একাধিকবার পুতিনের প্রশংসা করেছেন। এমনকি পুতিনকে ‘হিরো’ আখ্যা দিয়েছেন তিনি। ইঙ্গিত দিয়েছেন রাশিয়ার সঙ্গে কাজ করারও।

২০১৫ সালের ডিসেম্বরে এক সাক্ষাত্কারেও ট্রাম্পের মুখে পুতিনের প্রশংসা শোনা যায়। ওই সময় ‘এমএসএনবিসি’ টেলিভিশন চ্যানেলে দেওয়া সাক্ষাত্কারে তিনি বলেন, ‘পুতিন রাশিয়ার নেতৃত্ব দিচ্ছেন এবং তিনি একজন নেতা। আমাদের দেশে এমন জনপ্রিয় নেতা নেই। ’ ওই সাক্ষাত্কারেও পুতিনের সাফাই গেয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশেও অনেক খুনখারাবি হচ্ছে। ’

পুতিনের পক্ষ নিয়ে একের পর বক্তব্য দেওয়ায় ট্রাম্পের সমালোচনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ‘হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস’-এর সদস্য অ্যাডাম স্কিফ। ডেমোক্র্যাট এই নেতা সিএনএনকে বলেন, ‘পুতিনের ওপর থেকে খুনির তকমা সরাতে এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো মন্তব্য করলেন ট্রাম্প। আর এসব মন্তব্যের মাধ্যমে তিনি যুক্তরাষ্ট্রকেও রাশিয়ার কাতারে ফেলে দিয়েছেন। কিন্তু তিনি কি জানেন, এর মাধ্যমে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের কতটা ক্ষতি করেছেন, কিংবা রাশিয়ার প্রপাগান্ডায় কতটা সহায়তা করেছেন?’ সূত্র : পলিটিকো, সিএনএন।


মন্তব্য