kalerkantho


ভারতে পাঁচ রাজ্যের শুরুতে পাঞ্জাব ও গোয়ায় ভোট

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ভারতে পাঁচ রাজ্যের শুরুতে পাঞ্জাব ও গোয়ায় ভোট

ভারতের পাঞ্জাবে বিধানসভা নির্বাচনে জলন্ধরের একটি কেন্দ্রে ভোটারদের লাইন। ছবি : এএফপি

ভারতে গতকাল শনিবার থেকে শুরু হয়েছে পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ভোটের প্রথম দফা। নোট বাতিলের প্রভাব সাধারণ মানুষের ওপর কিভাবে পড়ছে, এই প্রথম এর ছাপ পড়বে ভোটিং মেশিনে।

গতকাল ভোট নেওয়া হয় পাঞ্জাব ও গোয়ায়। কড়া নিরাপত্তায় সকাল থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। এ দুই রাজ্যেই এক দফায় সব আসনে ভোট হয়েছে। পাঞ্জাবে ১১৭টি আসনে লড়ছেন এক হাজার ১৪৫ জন প্রার্থী। অন্যদিকে গোয়ার ৪০টি আসনে ২৫০ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হচ্ছে। সকাল ৭টা থেকে ভোট পর্ব শুরু হয় গোয়ায়। ৮টা থেকে নির্বাচন শুরু হয় পঞ্জাবে। ফল ঘোষণা হবে ১১ মার্চ।

গোয়া ও পাঞ্জাবে ক্ষমতা ধরে রাখাই চ্যালেঞ্জ গেরুয়া শিবিরের সামনে।

গত দুইবার শিরোমনি আকালি দলের সঙ্গে জোট বেঁধে পাঞ্জাবে ক্ষমতায় আসে বিজেপি। গোয়ায়ও শাসনভার ধরে রেখেছে তারা। এবার দুই রাজ্যে পালাবদল হতে পারে বলে মনে করছে কংগ্রেস। অন্যদিকে পাঞ্জাবে ভালো ফলের ব্যাপারে আশাবাদী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টিও (এএপি)।

দেশটিতে নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর এই প্রথম পুরোদস্তুর নির্বাচন হচ্ছে। আবার পাঞ্জাব ও গোয়া দুটি রাজ্যেই ক্ষমতায় আছে বিজেপি। তাই বিজেপি নেতৃত্বের কাছে এটা বড় পরীক্ষা বলা চলে। নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত আমজনতা কিভাবে নিয়েছে, এর প্রমাণ কিছুটা হলেও এবার পাওয়া যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। এ ছাড়া আরো তিন রাজ্যে নির্বাচন রয়েছে। এগুলো হলো উত্তর প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড ও মণিপুর। এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উত্তর প্রদেশ। সমাজবাদী পার্টি-কংগ্রেস জোটকে হারিয়ে বিজেপি ক্ষমতায় আসতে পারবে কি না তা নিয়ে রয়েছে বড়সড় প্রশ্ন।

পাঞ্জাবের মুখ্য নির্বাচনী কর্মকর্তা ভি কে সিং জানিয়েছেন, ১১৭টি কেন্দ্রে ভোটারসংখ্যা প্রায় এক কোটি ৯৯ লাখ। এর মধ্যে ছয় লাখ নতুন ভোটার। এক হাজার ১৪৫ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ করবেন তাঁরা। এর মধ্যে ৮১ জন নারী প্রার্থী ও একজন রূপান্তরকামী রয়েছেন। নির্বাচন ঘিরে নিরাপত্তা তুঙ্গে। এক লাখ নিরাপত্তারক্ষী মোতায়েন করা হয়েছে পোলিং স্টেশনগুলোতে। ২২ হাজার ৬১৪টি পোলিং স্টেশনে নির্বাচন হবে। এর মধ্যে ৭৮৬টি অতি স্পর্শকাতর পোলিং স্টেশন ও ২৩টি বিধানসভা কেন্দ্রকে স্পর্শকাতর বলে ঘোষণা করা হয়েছে।

৪০ আসনবিশিষ্ট গোয়ায়ও জোর লড়াইয় আশা করছে রাজনৈতিক মহল। প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পারিকর নিজে এখানে প্রচার চালিয়েছেন। কংগ্রেসের পক্ষে প্রচার চালিয়েছিলেন সহসভাপতি রাহুল গান্ধী ও গোয়ার পর্যবেক্ষক দিগ্বিজয় সিং। গোয়ায় ১১ লাখ ৯ হাজার ভোটার। ২৫১ জন প্রার্থী নির্বাচনে লড়ছেন। গোয়ায়ও বিজেপি ও কংগ্রেসের মধ্যেই মূল লড়াই। তবে প্রভাব ফেলতে পারে কেজরিওয়ালের এএপি। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।


মন্তব্য