kalerkantho


পাল্টাপাল্টি জবাবে আবার ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



পাল্টাপাল্টি জবাবে আবার ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা

ইরান-যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টাপাল্টি পদক্ষেপ হিসেবে গতকাল শনিবার নিজেদের বিশেষ বাহিনীর মহড়ার জন্য ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করেছে ইরান। এর আগে গত রবিবার ইরান মাঝারি পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করে, যার জবাবে গত শুক্রবার দেশটির ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানবিশেষের ওপর অবরোধ আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র।

পশ্চিমা দেশটির এ পদক্ষেপের পাল্টা জবাব হিসেবে আবার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালায় ইরান।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারের সময় ইরানের সঙ্গে ছয় বিশ্বশক্তির পরমাণু চুক্তি পর্যালোচনার কথা বলেছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর ট্রাম্প সৌদি বাদশাহর সঙ্গে ফোনালাপে পরমাণু চুক্তি দ্রুত বাস্তবায়নের ওপর জোর দেন। এরই মধ্যে গত রবিবার মাঝারি পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালায় ইরান, যেটি পরমাণু অস্ত্র বহনে সক্ষম বলে ধারণা করছেন পর্যবেক্ষকরা। ইরান তাদের এ কর্মসূচিকে প্রতিরক্ষাব্যবস্থার উন্নয়নের অংশ হিসেবে বর্ণনা করলেও ক্ষিপ্ত যুক্তরাষ্ট্র গত শুক্রবার ইরানের ১৩ ব্যক্তি ও ১২টি প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। এ পদক্ষেপ ঘোষণার পরদিন শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস ম্যাটিস ইরানকে সন্ত্রাসবাদে সবচেয়ে বেশি অর্থের জোগানদার রাষ্ট্র অ্যাখ্যা দেন। জাপান সফরকালে গতকাল ম্যাটিস টোকিওতে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন। তবে তিনি এটাও জানান, আপাতত মধ্যপ্রাচ্যে সেনা বৃদ্ধির পরিকল্পনা যুক্তরাষ্ট্রের নেই।

ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডস জানিয়েছে, গতকালের পরীক্ষার জন্য মোতায়েন করা ক্ষেপণাস্ত্রগুলো একদম স্বল্প পাল্লার এবং সেটা সর্বোচ্চ ৭৫ কিলোমিটার।

তবে গত রবিবারের ক্ষেপণাস্ত্রটি দুই হাজার কিলোমিটার দূরত্বে আঘাত করতে সক্ষম, যার অর্থ দাঁড়াচ্ছে সেটি ইসরায়েলে এবং ওই অঞ্চলে অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ঘাঁটিতে আঘাত করতে পারবে।

ইরান জানিয়েছে, কেবল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার মধ্যেই তাদের জবাব সীমাবদ্ধ থাকবে না। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গতকাল জানায়, এ অঞ্চলে চরমপন্থী সন্ত্রাসী গোষ্ঠী তৈরি ও তাদের মদদদানকারী আমেরিকান ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ওপর ইরান সীমাবদ্ধতা আরোপ করবে। যুক্তরাষ্ট্রের নতুন পদক্ষেপের জবাবে এবং প্রতিশোধমূলক পদক্ষেপ হিসেবে এটা করা হবে। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য