kalerkantho


ফ্যাসিবাদবিষয়ক বিশেষজ্ঞের পর্যবেক্ষণ

‘সামরিক অভ্যুত্থান’-এর মতো কাজ করে চলেছেন ট্রাম্প

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



‘সামরিক অভ্যুত্থান’-এর মতো কাজ করে চলেছেন ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কথাবার্তা এবং আচার-আচরণ ‘সামরিক অভ্যুত্থান’-এর মতো বলে মন্তব্য করেছেন ফ্যাসিবাদবিষয়ক বিশেষজ্ঞ রুথ বেন-ঘিয়াট। তিনি সতর্কতা উচ্চারণ করে বলেন, প্রথম পক্ষকালের মধ্যেই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যে আচরণ দেখিয়ে চলেছেন তাতে মনে হচ্ছে, অভ্যুত্থান চলছে।

ঘিয়াট নিউ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটির হিস্ট্রি অ্যান্ড ইটালিয়ান স্টাডিবিষয়ক অধ্যাপক। তিনি ‘ইটালিয়ান ফ্যাসিজমস ইমপায়ার সিনেমা’ নামে একটি বইও লিখেছেন। সিএনএনে লেখা এক উপসম্পাদকীয়তে তিনি ট্রাম্প সম্পর্কে এ সব মন্তব্য করেন। ট্রাম্প প্রশাসনকে সতর্ক করে বলেন, ‘যে ভাষায় তারা কথা বলছে এবং যে কাজ তারা করছে তাতে তাদের অভ্যুত্থানের মতো অভিসন্ধি রয়েছে—এমনটি আমরা ভাবতেই পারি। ’ তিনি আরো বলেন, ‘আমার শব্দ ব্যবহার নিয়ে হয়তো কারো কারো ভ্রু কুঁচকে গেছে। সামরিক জান্তাশাসিত দেশগুলোর ক্ষেত্রে ট্রাম্পের মতো ভাষার ব্যবহার হয়। যেখানে সহিংসতার মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করা হয়। ট্রাম্প বৈধভাবে ক্ষমতায় এসেছেন। তবে এ সপ্তাহে তিনি যেভাবে তাঁর ক্ষমতা ব্যবহার করছেন, তা অনেককেই বিস্মিত করেছে।

তিনি এমন আচরণ করছেন, যা কর্তৃত্বপরায়ণ মানুষরাই পছন্দ করে। ’

‘এর মধ্যে কিছু শাস্তিমূলক (ভারপ্রাপ্ত অ্যাটর্নি জেনারেল স্যালি ইয়েটসকে বরখাস্তের কথা উল্লেখ করে) ব্যবস্থা রয়েছে, যা সরকারের মধ্যে সংকট তৈরি করে এমন লোকদের সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা হিসেবে দেখা যায়। এর ফলে যে শূন্যতা তৈরি হবে, তা আস্থাভাজনদের দিয়ে পূরণ করা হবে। অথবা পূরণ করার চেষ্টাই করা হবে না। ’

ক্ষমতা নেওয়ার দুই সপ্তাহের মধ্যেই নানা বিতর্কিত কাজের মধ্যে দিয়ে হৈচৈ ফেলে দিয়েছেন ট্রাম্প। মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ, ওবামাকেয়ারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা, অভিবাসী ও শরণার্থীদের নিয়ে কঠোর অবস্থানসহ অন্তত ১৫টি নির্বাহী আদেশ জারি করেছেন। এর প্রায় প্রতিটি নিয়েই বিতর্ক রয়েছে। তবে শরণার্থী ও অভিবাসী ঠেকাতে জারি করা আদেশ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে সবচেয়ে বেশি। এই আইনে সাতটি মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের বিষয়ে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। সূত্র : দ্য ইনডিপেনডেন্ট।


মন্তব্য