kalerkantho


বললেন ওবামা

ট্রাম্পের বক্তব্য বিপজ্জনক

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ট্রাম্পের বক্তব্য বিপজ্জনক

যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হেরে গেলে তা মেনে না নেওয়ার আভাস দেওয়ায় রিপাবলিকান দলের প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের কঠোর সমালোচনা করেছেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। তিনি বলেছেন, ট্রাম্প হেরে গেলে এবং ভোটের ফল মেনে না নিলে তা হবে ‘বিপজ্জনক’।

বৃহস্পতিবার ফ্লোরিডার মায়ামিতে ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের পক্ষে এক নির্বাচনী সমাবেশে ওবামা এ কথা বলেন।

স্থানীয় সময় বুধবার লাস ভেগাসে অনুষ্ঠিত তৃতীয় ও শেষ প্রেসিডেনশিয়াল বিতর্কে ট্রাম্প নির্বাচনের ফল মেনে নেওয়া নিয়ে রহস্য রেখে দেন। নির্বাচনের ফল হিলারি ক্লিনটনের পক্ষে গেলে তিনি ফল মেনে নেবেন কি না অনুষ্ঠানের সঞ্চালকের এমন প্রশ্নের জবাবে ট্রাম্প বলেন, নির্বাচনের ফল দেখেই সিদ্ধান্ত নেবেন। ট্রাম্প বলেন, এ বিষয়ে কিছুটা রহস্য রাখতে চান তিনি। এখনই সব বলে দিতে চান না। তাঁর এই মন্তব্যের পরই দেশজুড়ে আলোড়ন শুরু হয়।

পরে ওহাইও অঙ্গরাজ্যে সমর্থকদের উদ্দেশে ট্রাম্প বলেন, জিতে গেলে ঐতিহাসিক এই নির্বাচনের ফল তিনি মেনে নেবেন। কিন্তু ফলাফল প্রশ্নবিদ্ধ হলে আইনি ব্যবস্থাও নিতে পারেন।

ওবামা ট্রাম্পের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘নির্বাচনের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা মানে গণতন্ত্রকে হেয় করা।

ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনের বৈধতা নিয়ে জনগণের মনে সন্দেহের বীজ বুনে দেশের শত্রুদের হাতকে শক্তিশালী করেছেন। ’ ওবামা জানান, শেষ বিতর্কে কোনো প্রমাণ ছাড়াই নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ তুলেছেন ট্রাম্প। ‘মার্কিন ইতিহাসে ট্রাম্প সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের প্রথম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী, যিনি নির্বাচনের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন। এটাকে হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ নেই। ’ তিনি আরো জানান, যুক্তরাষ্ট্রের মতো একটি বড় দেশে নির্বাচনে কারচুপি করার কোনো সুযোগ নেই।

মার্কিন ফার্স্টলেডি মিশেল ওবামাও ট্রাম্পের ভোট কারচুপির ফাঁদে পা না দিতে ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। মায়ামির ওই সমাবেশে মিশেল বলেন, ট্রাম্প ভোটারদের হতাশ করার চেষ্টা করছেন। তিনি বোঝাতে চাইছেন, তাদের ভোট কোনো কাজে লাগবে না। মিশেল ভোটারদের এ ব্যাপারে সতর্ক থাকতে বলেন।

নির্বাচনের শেষ বিতর্কে পরাজিত হয়েছেন ট্রাম্প। এর আগে একের পর এক যৌন কেলেঙ্কারির অভিযোগ ও নারীদের নিয়ে অশ্লীল ভিডিও প্রচার করায় ট্রাম্প সমালোচিত হয়েছেন। সূত্র : এএফপি, বিবিসি।


মন্তব্য