kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মসুল অভিযানে সহায়তা করবে শিয়া যোদ্ধারা

সাম্প্রদায়িক সহিংসতার আশঙ্কা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ইরাকে মসুল যুদ্ধে ইসলামিক স্টেটকে (আইএস) ঘেরাও করতে সেনাবাহিনীর সঙ্গে লড়বে শিয়াপন্থী সশস্ত্র সংগঠন পপুলার মোবিলাইজেশন ফোর্স (পিএমএফ)। গতকাল বুধবার সংগঠনটি ঘোষণা দেয়, তারা আইএসের সিরিয়ায় পালিয়ে যাওয়ার পথ আটকাবে।

তাদের এ ঘোষণায় প্রধানত সুন্নি অধ্যুষিত মসুলে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা সৃষ্টির আশঙ্কা করছে মানবাধিকার সংগঠনগুলো।

পিএমএফের অভিযোগ, যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট আইএসবিরোধী যুদ্ধে ইরাককে সহায়তার নামে জঙ্গিদের নিরাপদে পালানোর সুযোগ দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে। এ ক্ষেত্রে মসুলের ৫৫ কিলোমিটার পশ্চিমে তাল আফার হয়ে জঙ্গিরা পালানোর চেষ্টা করবে। তাই তাল আফারের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণে ইরাকি বাহিনীকে সহায়তা করার ঘোষণা দিয়েছে পিএমএফ। বিশ্লেষকদের অভিমত, এতে একদিকে আইএসে পলায়ন রোধ করা যাবে এবং অন্যদিকে ইরানের সমর্থনপুষ্ট সিরীয় প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের বাহিনীকে খুশি করা যাবে।

বলা দরকার, আইএসের তাণ্ডবের আগে ১৫ লাখ থেকে ২০ লাখ জন-অধ্যুষিত তাল আফারে সুন্নি ও নৃতাত্ত্বিক শিয়াপন্থী তুর্কিদের মিশেল ছিল। ২০১৪ সালে সুন্নিপন্থী আইএসের হামলায় শিয়ারা ওই এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়। ওই বছরই বাস্তুচ্যুত শিয়াদের নিয়ে গঠিত হয় পিএমএফ, যারা আবাদি সরকারকে তাদের কার্যবিবরণী দাখিল করে। তাদের বেশির ভাগ সদস্য ইরানের প্রশিক্ষিত।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন ঊর্ধ্বতন ইরাকি কর্মকর্তা বলেন, ‘তাল আফার শিয়াপ্রধান হওয়ায় ইরান ও পিএমএফ ওই এলাকার নিয়ন্ত্রণ গ্রহণের পরিকল্পনা করেছে। এটাকে তারা মসুলে ঢোকার পথ হিসেবে ব্যবহার করতে চায়। একই সঙ্গে তারা এ অঞ্চলকে সিরিয়া যুদ্ধে অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে কাজে লাগাতে চায়। ’ সূত্র : রয়টার্স।


মন্তব্য