kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পাকিস্তানে সাংবাদিকের দেশ ত্যাগে বাধা প্রত্যাহার

জাতীয় নিরাপত্তার হুমকি না হওয়ার আহ্বান সেনাবাহিনীর

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



পাকিস্তান সরকার ও সেনাবাহিনীর রুদ্ধদ্বার বৈঠকের কথোপকথন ফাঁসের দায়ে স্থানীয় ইংরেজি দৈনিক ডন পত্রিকার সাংবাদিকের ওপর জারি করা দেশ ত্যাগের নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে সরকার। গত শুক্রবার দেশটির অন্যতম শীর্ষ দুই সাংবাদিক সংগঠনের সঙ্গে বৈঠকের পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন।

এদিকে সেনা সদর দপ্তর থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়, জঙ্গি দমনের ব্যাপারে সরকার ও সেনাবাহিনীর মধ্যকার দ্বন্দ্বের মিথ্যা তথ্য পরিবেশন করাটা জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি।

জঙ্গি দমন নিয়ে সরকার ও সেনাবাহিনীর অন্তর্দ্বন্দ্বের খবর প্রকাশ করায় ডনের সহকারী সম্পাদক সিরিল আলমেইদার দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে সরকার। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন ও স্থানীয় সাংবাদিকদের চাপের মুখে তা প্রত্যাহার করা হয়। গত শুক্রবার অল পাকিস্তান নিউজ পেপার সোসাইটি এবং কাউন্সিল অব পাকিস্তান নিউজ পেপার এডিটরসের সঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চৌধুরী নিসার আলী খান ও তথ্যমন্ত্রী পারভেজ রশিদের বৈঠকের পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়।

এদিকে শুক্রবার রাওয়ালপিণ্ডিতে সেনা সদর দপ্তরে সেনাপ্রধান জেনারেল রাহেল শরিফ নিরাপত্তা বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন। সেখানে তিনি সরকার-সেনাবাহিনীর বৈঠকের কথোপকথনের ‘মিথ্যা তথ্য ফাঁসের’ ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। সেনা সদর দপ্তরের বিবৃতিতে বলা হয়, জঙ্গি দমনের ব্যাপারে সরকার ও সেনাবাহিনীর মধ্যকার দ্বন্দ্বের মিথ্যা তথ্য পরিবেশন করাটা জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি। বিবৃতিতে আরো বলা হয়, দেশের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাদের ওই বৈঠকে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ সভাপতিত্ব করেছেন। সুতরাং বৈঠকের কথোপকথন নিয়ে এ ধরনের খবর প্রকাশের দায় নওয়াজ সরকারের ওপর বর্তায়।

সরকার-সেনাবাহিনীর বৈঠক নিয়ে গত ৬ অক্টোবর প্রকাশিত ডনের খবরে বলা হয়, বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নওয়াজের ভাই ও পাঞ্জাবের প্রাদেশিক মন্ত্রী শাহবাজ শরিফ অভিযোগ করেন, বিভিন্ন সময় সন্ত্রাসী ও জঙ্গিদের কারামুক্ত করতে সরাসরি হস্তক্ষেপ করেছে দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই। এ খবর প্রকাশের পর দেশজুড়ে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। বৈঠকে এ ধরনের কথা হয়নি বলে দাবি করে সরকার। সরকারের পাশাপাশি সেনাবাহিনী এ তথ্য মিথ্যা ও ভিত্তিহীন বলে দাবি করে। মিথ্যা তথ্য প্রকাশের অভিযোগে সিরিলের বিদেশ ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।


মন্তব্য