kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


হিলারির ‘চেহারা’ পছন্দ নয় ট্রাম্পের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



হিলারির ‘চেহারা’ পছন্দ নয় ট্রাম্পের

ডোনাল্ড ট্রাম্প, হিলারি ক্লিনটন

দ্বিতীয় প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্কে ডেমোক্রেটিক প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের ‘চেহারা’ পছন্দ হয়নি রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের। হিলারি ‘মোহিত’ করতে পারেননি তাঁকে।

কোনো নারীর দর্শনধারী নিয়ে ট্রাম্পের নেতিবাচক মন্তব্য অবশ্য এটিই প্রথম নয়। এর আগেও প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে এসেই বহুবার বহুভাবে এ প্রসঙ্গে নানা মন্তব্য করেছেন তিনি। একসময় ট্রাম্পের কম্পানি থেকে সুন্দরী প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হতো। সে সময় বিচারকের আসনেও কখনো-সখনো বসেছেন ট্রাম্প। প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করতে এসেও তিনি নিজেকে বিচারকের আসনে বসিয়েই কথা বলে চলেছেন কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

নর্থ ক্যারোলাইনার এক সমাবেশে সম্প্রতি ট্রাম্প দ্বিতীয় বিতর্কের প্রসঙ্গ তুলে বলেন, ‘তিনি (হিলারি) আমার সামনে দিয়ে হাঁটাহাঁটি করেছেন, বিশ্বাস করুন আমার একটুও ভালো লাগেনি। ’ ট্রাম্প এমন এক সময়ে বিষয়টি নিয়ে কথা বললেন, যখন চারপাশ থেকে তাঁর বিরুদ্ধে নারীদের যৌন হয়রানির প্রচুর অভিযোগ উঠছে। জোর গলায় সব কিছু অস্বীকার করলেও সম্প্রতি তাঁর যে ভিডিও টেপ ওয়াশিংটন পোস্ট প্রচার করেছে, তা উল্টো দিকেই যুক্তি তুলে ধরে।

এ বিষয়গুলো নিয়ে অবশ্য ট্রাম্পের মুখ বরাবরই আলগা। প্রচারের শুরুতে নানা বিষয়ে কথা বলতে তিনি এত ব্যস্ত ছিলেন যে এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা কিছুটা কম হয়েছে। ভিডিও প্রকাশের পর রাখঢাক ছাড়াই আলোচনায় চলে এসেছে ট্রাম্পের নারীঘটিত বিষয়গুলো। আর ট্রাম্প নিজেও এতে ঘি ঢালছেন। হিলারি তাঁকে ‘আকর্ষণ’ (ইমপ্রেস) করতে পারেননি—এমন মন্তব্য ট্রাম্পের এটিই প্রথম নয়। গত সপ্তাহে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অসম্মানজনক আচরণের অভিযোগ করেন জেসিকা লিডস নামের এক নারী। ট্রাম্পের মতে, এই নারী দেখতে এমন কিছু আকর্ষণীয় নন যে তিনি হামলা চালাবেন। তিনি বলেন, ‘তিনি (জেসিকা) কখনোই আমার প্রথম পছন্দ নন। ’

এ প্রসঙ্গ এবারের নির্বাচনী প্রচারে এর আগেও এসেছে। প্রাইমারিতে রিপাবলিকান পার্টির কার্লা ফিওরিনা নামের এক প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন ট্রাম্পের। রোলিং স্টোন পত্রিকায় দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে এই নারী প্রসঙ্গে ট্রাম্প বলেন, ‘ওর মুখের দিকে তাকান। মানুষ কেন তাঁকে ভোট দেবে? তাঁকে কি আমাদের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে কল্পনাও করা যায়? ’

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বর্তমানে ১৫ নারী অশোভন আচরণের অভিযোগ তুলেছেন। তবে তাঁর দাবি, সবই মিথ্যা, বানানো। তিনি বলেন, মেক্সিকোর কোটিপতি কার্লোস স্লিম ক্লিনটন ফাউন্ডেশনে চাঁদা দিয়েছেন। নিউ ইয়র্ক টাইমস পত্রিকায় ১৭ শতাংশের মালিকানা তাঁর। কাজেই পত্রিকাটিকে দিয়ে তিনি এসব গল্প তৈরি করছেন। ট্রাম্প বলেন, নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদকরা সাংবাদিক নন, তাঁরা কার্লোস স্লিম ও হিলারি ক্লিনটনের করপোরেট লবিস্ট। ট্রাম্পের দাবি, তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ ১০০ শতাংশ বানোয়াট। ‘এ মানুষগুলোকে আমি কখনো দেখিনি। তাদের চিনি না। ’ যদিও অভিযোগকারিনীদের মধ্যে বেশ কয়েকজন ট্রাম্পের সঙ্গে তোলা ছবিও গণমাধ্যমকে দেখিয়েছেন।

ট্রাম্প আমাকে কোণঠাসা করার চেষ্টা করেন : হিলারি

দ্বিতীয় বিতর্কে ট্রাম্প হিলারি ক্লিনটনকে কোণঠাসা করার চেষ্টা করেছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন এই সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বিতর্কের পর দেওয়া প্রথম সাক্ষাত্কারে তিনি বলেন, ‘ট্রাম্প বিতর্কে প্রাধান্য বিস্তারের চেষ্টা করেছেন। আমি ক্ষণে ক্ষণে আমার পেছনে তাঁর উপস্থিতি টের পাচ্ছিলাম। বিষয়টি অস্বস্তিকর। ’ হিলারি বলেন, ‘ট্রাম্পের মনোযোগ আমার দিকে ছিল না। তিনি যেন মঞ্চের জায়গা দখল করতেই বেশি ব্যস্ত ছিলেন। তবে ওই ভিডিও প্রকাশের কারণেই তিনি হয়তো খেপে ছিলেন এবং তাঁর আচরণে সেই ক্ষোভই প্রকাশ পাচ্ছিল। ’ সূত্র : নিউ ইয়র্ক ডেইলি নিউজ।


মন্তব্য