kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আলেপ্পোর বিদ্রোহীদের শহর ছাড়ার সুযোগ দিতে চায় রাশিয়া

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



সিরিয়া ও রাশিয়ার যুদ্ধবিমান গতকাল শুক্রবার বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত আলেপ্পো শহরে বেশ কয়েকবার হামলা চালিয়েছে। একই সঙ্গে তারা বিদ্রোহীদের সঙ্গে যুদ্ধবিরতির ব্যাপারে নতুন করে আলোচনার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে।

মানবাধিকার সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি এ তথ্য জানিয়েছে। হামলার ব্যাপারে সংস্থাটির প্রধান জানিয়েছেন, ভোর থেকে সকালের কিছু সময় পর পর্যন্ত বেশ কয়েকবার ব্যাপক আকারে বিমান হামলা হয়েছে।

এদিকে গত বৃহস্পতিবার আলেপ্পোয় বিদ্রোহীদের চেক পয়েন্টে এক গাড়িবোমায় বিস্ফোরণে ১৭ জন মারা গেছে। সিরিয়ান অবজারভেটরি জানিয়েছে, তাদের মধ্যে ১৪ জন বিদ্রোহী যোদ্ধা।

রাশিয়া বিদ্রোহীদের আলেপ্পো শহর থেকে নিরাপদে চলে যাওয়ার সুযোগ দেবে বলে জানিয়েছে। রাশিয়ার লেফটেন্যান্ট জেনারেল সের্গেই রুদস্কয় বলেন, ‘আমরা আলেপ্পো থেকে বিদ্রোহীদের নিরাপদে সরে যাওয়ার ব্যাপারে নিশ্চয়তা দিতে প্রস্তুত। নিরাপদে সাধারণ নাগরিক আলেপ্পোতে যেতে এবং আসতে পারবে। সেই সঙ্গে সেখানে মানবিক সহায়তা দেওয়ারও সুযোগ দেওয়া হবে। ’

শুক্রবারের হামলায় কেমন ক্ষতি হয়েছে সে ব্যাপারে সিরিয়ান অবজারভেটরির প্রধান রামি আবদেল রহমান কিছু জানাতে পারেননি। তবে উদ্ধারকারী সংস্থা হোয়াইট হেলমেটের একজন মুখপাত্র ইব্রাহিম আবু আল লেইথ বলেন, আলেপ্পো শহরে এবং এর আশপাশে ব্যাপক হামলা হয়েছে। বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত জেলা তারিক আল বাবে ধ্বংসস্তূপের নিচে অনেকে আটকা পড়েছে। উদ্ধারকারীরা তাদের উদ্ধার করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

সিরিয়ান সেনাবাহিনী জানিয়েছে, এ মাসের শুরুতে শহরের পূর্বাঞ্চল থেকে নাগরিকদের নিরাপদে চলে যাওয়ার সুযোগ দিতে হামলার সংখ্যা কমানো হয়েছিল। কিন্তু এখন আবার হামলার পরিমাণ বাড়ানো হয়েছে। এদিকে বৃহস্পতিবার আলেপ্পোয় বিদ্রোহীদের চেক পয়েন্টে এক গাড়িবোমা বিস্ফোরণে ১৭ জন মারা গেছে। সিরিয়ান অবজারভেটরি জানিয়েছে, তাদের মধ্যে ১৪ জন বিদ্রোহী যোদ্ধা।

সেপ্টেম্বরের শেষ সময় থেকে সেনা অভিযান শুরুর পর এ পর্যন্ত ৩৭০ জন মারা গেছে। তাদের মধ্যে ৭০টি শিশু। সাধারণ নাগরিকের মৃত্যুর হার বেড়ে যাওয়ায় রাশিয়াকে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়তে হচ্ছে। পশ্চিমারা এসব মৃত্যুকে যুদ্ধাপরাধ বলে অভিযোগ করছে। সূত্র : এএফপি।

 


মন্তব্য