kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


‘হেরে গেলে সময় অর্থের বিরাট অপচয় হবে’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



‘হেরে গেলে সময় অর্থের বিরাট অপচয় হবে’

রিপাবলিকান দলের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প মনে করেন, আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হেরে গেলে এটা হবে তাঁর স্মরণকালের মধ্যে সবচেয়ে বড় সময়ের অপচয়। ফ্লোরিডার ওকালায় এক নির্বাচনী জনসভায় গত বুধবার এ কথা বলেন তিনি।

এদিকে ট্রাম্পকে ‘বাজে’ অভিহিত করে অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলসের পার্লামেন্ট বলেছে, তিনি প্রেসিডেন্ট পদের অযোগ্য।

ট্রাম্প তাঁর জনসভার ভাষণে বলেন, ‘আমি যদি ৮ নভেম্বরের নির্বাচনে জিততে না পারি তাহলে আমার বিবেচনায় তা হবে একটি ঘটনায় সবচেয়ে বেশি সময়, অর্থ ও শক্তির অপচয়। নির্বাচনের প্রচারে ট্রাম্পের নিজ তহবিল থেকে ১০ কোটি ডলার খরচের পরিকল্পনা রয়েছে। তিনি আরো বলেন, ‘সে ক্ষেত্রে আপনাদের আয়কর কমিয়ে আনা বা সংবিধানের দ্বিতীয় অধ্যাদেশ অটুট রাখা এবং সুপ্রিম কোর্টে বিচারক নিয়োগ, আপনাদের ভ্যাটের যথাযথ ব্যবহার করা সম্ভব হবে না। ’

সাম্প্রতিক সময়ে ট্রাম্প অবশ্য তাঁর ডেমোক্রেটিক প্রতিদ্বন্দ্বী হিলারি ক্লিনটনের চেয়ে জনমত জরিপগুলোতে বেশ পিছিয়ে রয়েছেন। গত শুক্রবার নারীদের নিয়ে অশ্লীল কথাবার্তার একটি ভিডিও প্রকাশের পর থেকে তাঁর প্রচারদলের তৎপরতাও কিছুটা এলোমেলো হয়ে গেছে। ওই ভিডিওর জন্য অবশ্য পরে তিনি বারবারই ক্ষমা চেয়েছেন। তাঁর ভাষায় এগুলো ‘লকার রুমের’ কথা।

সভায় ট্রাম্প বলেন, ‘হিলারি একজন অপরাধী। তিনি সরকারি কাজের ই-মেইলের জন্য ব্যক্তিগত সার্ভার ব্যবহার করে দেশকে নিরাপত্তা ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিয়েছেন। তিনি  আরো বলেন, হিলারি ক্লিনটন দেশের যে ক্ষতি করেছেন তা ভাবতেই আমার লজ্জা হয়। ’

অস্ট্রেলিয়ার নিউ ওয়েলসের পার্লামেন্ট সর্বসম্মতভাবে মত দিয়েছে যে ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট পদের যোগ্য নন। এই প্রস্তাবে নিন্দা জানিয়ে বলা হয়, ট্রাম্প নারীবিদ্বেষী এবং সংখ্যালঘুদের সম্পর্কেও ঘৃণ্য মন্তব্য করেছেন। ২০০৫ সালের ওই ভিডিওকে ভিত্তি করেই প্রস্তাবটি তোলা হয়। অস্ট্রেলিয়ার গ্রিন পার্টির এমপি জেরেমি বাকিংহাম প্রস্তাবটি তোলেন। বিবৃতিতে বাকিংহাম বলেন, ট্রাম্প যে একজন বাজে লোক এ বিষয়ে হাউস সম্মত হয়েছে। যেকোনো ভদ্রলোক এতে একমত হতে বাধ্য। বিশ্ব আশা করে, মার্কিন ভোটাররা তাঁকে প্রত্যাখ্যান করবে। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য