kalerkantho


জানাজায় বিমান হামলা

ইয়েমেনে বিক্ষোভ বিচার দাবি

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ইয়েমেনে বিক্ষোভ বিচার দাবি

ইয়েমেনে জানাজা অনুষ্ঠানে বিমান হামলার ঘটনায় ক্ষোভে-শোকে রবিবার রাজধানী সানায় কয়েক হাজার লোক রাস্তায় নেমে আসে। শনিবারের ভয়াবহ ওই হামলায় ১৪০ জনের বেশি লোক প্রাণ হারায়। এদিকে জাতিসংঘ সদর দপ্তরের বাইরেও বিক্ষোভকারীরা জড়ো হয়ে এই হামলার আন্তর্জাতিক তদন্তের দাবি করে। তারা ওই হামলার জন্য সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটকে দায়ী করে। সৌদি জোট হামলার সঙ্গে তাদের সম্পৃক্ততার কথা অস্বীকার করে জানিয়েছে, তারা ঘটনার তদন্ত করবে। সাধারণ মানুষের এই হত্যাযজ্ঞের পর যুক্তরাষ্ট্র সৌদি জোটকে এত দিন ধরে সমর্থন দেওয়ার বিষয়টি পর্যালোচনা করছে বলে জানিয়েছে। এতে যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি আরবের সম্পর্কে আরো তিক্ত হয়ে ওঠার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্ত দাবি করেছেন। রাশিয়া, কানাডাসহ আরো কয়েকটি দেশ ওই নারকীয় হত্যাযজ্ঞের তদন্ত ও বিচার দাবি করেছে। জাতিসংঘ মহাসচিব বলেছেন, ‘বেসামরিক লোকের ওপর কোনো ধরনের হামলাই গ্রহণযোগ্য নয়। ’ তিনি ঘটনায় জড়িতদের বিচারের আওতায় আনার আহ্বান জানিয়েছেন। রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘এ ঘটনার অবশ্যই পূর্ণাঙ্গ ও নিরপেক্ষ তদন্ত হতে হবে এবং হামলার সংগঠকদের অবশ্যই যথাযথ শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। ’ দ্রুত তদন্তের আহ্বান জানিয়ে কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টিফেন ডিওন বলেছেন, ‘এ ধরনের ঘটনা যাতে আর না ঘটে সে জন্য ইয়েমেনে জড়িত সব পক্ষকে সংঘাত বন্ধ করতে হবে। ’

ইয়েমেনে গৃহযুদ্ধ শুরু হলে সৌদি জোট গত বছর দেশটির আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত সরকারের পক্ষে লড়াইয়ে যোগ দেয়। ওই লড়াইয়ে শিয়াপন্থী হুতি বিদ্রোহীরা রাজধানী সানার দখল নেয়। তাদের সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী গাওয়াল আল-রাইশানের বাবার জানাজা অনুষ্ঠানে শনিবারের বিমান হামলাটি হয়। এতে আহত হয়েছেন পাঁচ শতাধিক ব্যক্তি। অনেক হুতি কর্মকর্তা ওই জানাজায় অংশ নিয়েছিলেন এবং রাইশানও হামলায় গুরুতর আহত হন। ২০১৪ সালে দেশটিতে গৃহযুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৩০ লাখ লোক গৃহহীন হয়েছে। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য