kalerkantho


ঝুঁকিপূর্ণ অঙ্গরাজ্য নর্থ ক্যারোলাইনা

কৃষ্ণাঙ্গরাই হিলারির ভরসা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



কৃষ্ণাঙ্গরাই হিলারির ভরসা

যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ক্যারোলাইনা অঙ্গরাজ্য ডেমোক্রেটিক দলের প্রার্থীদের জন্য বরাবরই ঝুঁকিপূর্ণ। এর আগে বর্তমান প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ২০০৮ সালে একেবারে অল্প ব্যবধানে জিততে পারলেও পরেরবার ব্যর্থ হন। জনমত জরিপে এবারের প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনও একেবারে স্বল্প ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছেন। আর এই স্বল্প ব্যবধান আগামী মাসের ৮ তারিখ পর্যন্ত ধরে রাখতে চাইলে রাজ্যের কৃষ্ণাঙ্গ ভোটারদের সমর্থন লাগবে তাঁর।

কৃষ্ণাঙ্গরা ঐতিহ্যগতভাবেই ডেমোক্র্যাটদের সমর্থক। হিলারিকে শুধু নিশ্চিত করতে হবে যে ভোটকেন্দ্রে যাচ্ছে তারা। রাজ্যের শার্লোটে স্টেডিয়ামের বাইরে ফুটপাতে দাঁড়িয়ে বারবিকিউ বিক্রি করেন ৩৭ বছরের আফ্রিকান-আমেরিকান সান্টি জোন্স। তিনি মনে করেন, হিলারির পক্ষে এই কাজটি সম্ভব। তবে তাঁকে চেষ্টা করতে হবে। কৃষ্ণাঙ্গরা শুরু থেকেই রিপাবলিকান প্রার্থী ট্রাম্পকে পছন্দ করেন না। শুরুর দিকে ট্রাম্প নিজেও এমনভাবে প্রচার চালিয়েছেন যেন তিনি মূলত শ্বেতাঙ্গদের প্রার্থী। পরে মনোনয়ন চূড়ান্ত হওয়ায় তিনি কৃষ্ণাঙ্গদের কাছে পৌঁছতে চাইলেও তা খুব একটা কার্যকর হয়নি।

যুক্তরাষ্ট্রের মোট ভোটারের মধ্যে ১২ শতাংশ কৃষ্ণাঙ্গ। এদের মধ্যে আবার প্রতি ১০ জনে ৯ জন হিলারির সমর্থক। তবে এদের সবচেয়ে বড় সংকট হলো, সমর্থন করলেও তারা নির্বাচনের দিন ভোটকেন্দ্রে যাবে এমন কোনো নিশ্চয়তা নেই। এমনকি এ বিষয়ে জোন্সও নিশ্চিত নন।

শার্লোটে হিলারির প্রচারকর্মী আরনেটা স্ট্রিকল্যান্ড বলেন, যারা কাকে ভোট দেবে এখনো সে সিদ্ধান্ত নেয়নি, তাদের লক্ষ্য করেই প্রচার চলছে। তিনি বা অন্য কোনো কৃষ্ণাঙ্গ ট্রাম্পকে ভোট দিতে পারে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, বেশির ভাগ কৃষ্ণাঙ্গই ডেমোক্র্যাট। যাই ঘটুক না কেন তাদের ট্রাম্পকে ভোট দেওয়ার সম্ভাবনা নেই।

কৃষ্ণাঙ্গদের ভোটকেন্দ্রে টানতে উদ্যোগী হয়েছেন প্রেসিডেন্ট ওবামাও। গত মাসে ইস্যু করা এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ভোটে কিছু আসে যায় না, বিষয়টি এমন নয়। ২০০৮ ও ২০১২ সালে আফ্রিকান-আমেরিকানদের নির্বাচনে উপস্থিতি অভূতপূর্ব ছিল। সেই ধারাই ধরে রাখতে হবে।

ট্রাম্পের প্রতি রিপাবলিকান দলের কৃষ্ণাঙ্গদের আস্থাও কম। বিষয়টি দলের কনভেনশনে স্পষ্ট হয়ে যায়। গত ১০০ বছরের মধ্যে এবার সবচেয়ে কম কৃষ্ণাঙ্গ ডেলিগেটের সমর্থন পেয়েছেন তিনি। ট্রাম্পকে সমর্থন দেওয়া সেই স্বল্পসংখ্যক কৃষ্ণাঙ্গের মধ্যে একজন আডা ফিশার। তিনি তাঁর সমর্থনের কারণ সম্পর্কে বলেন, ‘কৃষ্ণাঙ্গরা পাগলের মতো হিলারিকে সমর্থন করছে। অথচ কৃষ্ণাঙ্গ শহরগুলো চরম দুর্দশার মধ্যে রয়েছে। এসব শহর একচেটিয়াভাবে ডেমোক্রেটিক পার্টির সমর্থক। ওবামা নিজে কৃষ্ণাঙ্গ হওয়া ছাড়া আর কী করেছেন আমাদের জন্য?’ সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য