kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


‘অনার কিলিং’ বন্ধে পাকিস্তানে বিল পাস

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৯ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



‘অনার কিলিং’ বন্ধে পাকিস্তানে বিল পাস

পাকিস্তানে পরিবারের সম্মান রক্ষার নামে আপনজনকে হত্যা করে খুনিরা যে আইনি ফাঁকফোকর ব্যবহার করে বিচার এড়িয়ে যেত, সেসব সুযোগ বন্ধ করার উদ্দেশ্যে পাকিস্তান পার্লামেন্ট একটি বিল পাস করেছে।

‘অনার কিলিং’ বলতে সাধারণভাবে বোঝানো হয় পারিবারিক সম্মান ক্ষুণ্ন করার অভিযোগে পরিবারের এক সদস্যের হাতে অন্য সদস্যের হত্যাকাণ্ড।

সাধারণত যৌনসংক্রান্ত কারণে এ ধরনের হত্যাকাণ্ড ঘটে এবং প্রায়ই এর শিকার হয়ে থাকে নারীরা।

পরিবারের সম্মান রক্ষার নামে স্বজনদের হত্যা করেও আইনের ফাঁক গলে এত দিন বেরিয়ে যেত খুনিরা। দেশটির আইনে বলা ছিল, পরিবার ক্ষমা করে দিলে দণ্ড থেকে মুক্তি পাবে আসামি। নতুন আইনে অপরাধ প্রমাণিত হলে হত্যাকারীকে মৃত্যুদণ্ডের শাস্তি  ভোগ করতে হবে। পরিবার ক্ষমা করে দিলেও সাজা থেকে রেহাই মিলবে না।

পাকিস্তানে পরিবারের সম্মান রক্ষার নামে প্রতিবছর শত শত নারী আপনজনের হাতে খুন হয়। দেশটির মানবাধিকার কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, কেবল ২০১৫ সালেই অন্তত ১১ শ নারী ‘অনার কিলিংয়ের’ শিকার হয়েছে। তবে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে এসব হত্যাকাণ্ডের খবর প্রকাশ্যে আসে না বলেও জানিয়েছে তারা।

গত জুলাইয়ে দেশটিতে ‘অনার কিলিং’য়ের শিকার হন ব্রিটেনে বসবাসকারী নারী সামিয়া শহীদ। বাবার অসুস্থতার কথা বলে তাঁকে পাকিস্তানে ডেকে এনে হত্যা করা হয়। সামিয়ার বাবা ও সাবেক স্বামী এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত বলে অভিযোগ করা হয়েছে। গত জুলাইয়ে ভাইয়ের হাতে খুন হন সোশ্যাল মিডিয়ায় জনপ্রিয়তা পাওয়া কান্দিল বেলুচ। তাঁকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়।

পার্লামেন্টের উভয় কক্ষে পাস হওয়া নতুন বিলকে স্বাগত জানিয়েছেন এবং আইনটির সংশোধনী নিয়ে কাজ করা ব্যক্তিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন পাকিস্তানের অধিকারকর্মী ও চলচ্চিত্র নির্মাতা শারমিন ওবায়েদ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তিনি লিখেছেন, ‘এতে রাতারাতি হয়তো পরিস্থিতির বদল ঘটবে না, কিন্তু সঠিক পথের দিশা পাওয়া যাবে। ’ অনার কিলিং নিয়ে করা শারমিনের একটি তথ্যচিত্র এ বছর অস্কার পুরস্কার পেয়েছে। সূত্র : বিবিসি, এএফপি।


মন্তব্য