kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মরক্কোর পার্লামেন্ট নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের জয়

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৯ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



মরক্কোর পার্লামেন্ট নির্বাচনে জয় পেয়েছে ক্ষমতাসীন ইসলামপন্থী দল জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি (পিজেডি)। ৩৯৫ আসনের মধ্যে ১২৫ আসন পেয়ে সব দলের চেয়ে এগিয়ে গেছে পিজেডি।

গতকাল শনিবার নির্বাচনী কর্তৃপক্ষ এ ফল ঘোষণা করে।

মরক্কোর বাদশাহর ঘনিষ্ঠজনের নেতৃত্বাধীন অথেনটিসিটি অ্যান্ড মডার্নিটি পার্টি (পিএএম) ১০২ আসন পেয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। অন্যদিকে ফ্রান্সের ঔপনিবেশিক শাসনমুক্ত হওয়ার জন্য যাদের লড়াই ইতিহাসে স্বীকৃত, সেই ইসতিকলাল দল ৪৫ আসন পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে।

২০১১ সালে সাংবিধানিক সংস্কারের পর অনুষ্ঠিত নির্বাচনেও জয়ী হয়েছিল পিজেডি। দ্বিতীয়বারের মতো জয়ী পিজেডি জানিয়েছে, অর্থনৈতিক এবং সামাজিক সংস্কারের যে ধারা তারা সৃষ্টি করেছে, সেই ধারাবাহিকতা রক্ষায় তারা জোর দেবে।

দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোহামেদ হাসাদের দাবি, নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। নির্বাচনে মোট ৪৩ শতাংশ ভোট পড়েছে। ভোটার সংখ্যা সব মিলিয়ে ৬৭ লাখ ৫০ হাজার। ভোট কারচুপির অভিযোগ তিনি অস্বীকার করেছেন।

প্রসঙ্গত, নির্বাচনে জয়ী পিজেডি ও দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা পিএএম উভয়ই নির্বাচন চলাকালে ভোট কারচুপির অভিযোগ আনে এবং এ ব্যাপারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে হস্তক্ষেপ করার আহ্বান জানায়। স্থানীয় সম্প্রচারমাধ্যমগুলো রাজধানী রাবাতে পিজেডির এক প্রার্থীর ওপর হামলার ভিডিওচিত্র প্রকাশ করে। এক ব্যক্তির ব্যালট বাক্স ভরার ভিডিওচিত্রও সম্প্রচারমাধ্যমে প্রকাশ পায়। ভোটগ্রহণের অনিয়মের ব্যাপারে পিএএম ৫০টি অভিযোগ দাখিলের খবরও নিশ্চিত করেছে।

পরপর দুই মেয়াদে জয়ী পিজেডির আগের শাসনামলে অর্থনীতিতে ধস নামে, বেকারত্ব বেড়ে যায়, দেশটির অর্থনীতির অন্যতম ভিত্তি কৃষি প্রচণ্ড ক্ষতিগ্রস্ত হয়। চাকরিজীবীদের অবসর ব্যবস্থায় সংস্কার নিয়েও বিতর্ক তৈরি হয়। এসবের মধ্যেই আবার জয়ী হয়েছে ইসলামপন্থী পিজেডি। নির্বাচনে যে দলই জিতুক, মূল ক্ষমতা আদতে থাকছে দেশের বাদশাহ ষষ্ঠ মোহাম্মেদের হাতে। দেশটিতে এই রাজপরিবার ৩৫০ বছর ধরে রাজত্ব করছে। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য