kalerkantho


মিয়ানমারে বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা শিথিল করল যুক্তরাষ্ট্র

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৯ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



মিয়ানমারে বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা শিথিল করল যুক্তরাষ্ট্র

মিয়ানমারের ওপর থাকা বাণিজ্যিক নিষেধাজ্ঞা শিথিলে গত শুক্রবার এক নির্বাহী আদেশ জারি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। মিয়ানমারে সামরিক শাসনামলে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে দেশটির ওপর এসব নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশন উপলক্ষে মিয়ানমারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সরকারি উপদেষ্টা অং সান সু চির যুক্তরাষ্ট্র সফরকালে এক বৈঠকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে তাঁকে আশ্বাস দেন ওবামা। ওই বৈঠকের এক মাস না পেরোতেই ওবামার পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এলো।

দরিদ্র দেশগুলোর জন্য প্রযোজ্য বাণিজ্য সুবিধা থেকে ১৯৮৯ সালে মিয়ানমারকে বহিষ্কার করে যুক্তরাষ্ট্র। দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় দেশটির সামরিক শাসনামলে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্র এ পদক্ষেপ নেয়। পশ্চিমা দেশটি গত শুক্রবার এ অবস্থান থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে সরে আসে। ওবামার সরকার মিয়ানমারের সাবেক সামরিক জান্তার সঙ্গে জড়িত অন্ততপক্ষে ১০০টি কম্পানি ও ব্যক্তির ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করেছে। তবে বেশ কয়েকজন ব্যক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা এখনো রয়েছে।

ওবামার কার্যালয় হোয়াইট হাউস থেকে বলা হয়, গণতন্ত্র বাস্তবায়নের পথে মিয়ানমারের সুসংহত অগ্রগতির অর্থ হলো, তারা আমেরিকার জাতীয় নিরাপত্তার জন্য আর হুমকি নয়। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদ ও সিনেটের দুজন স্পিকারের কাছে লেখা এক চিঠিতে ওবামা বলেন, ‘গণতান্ত্রিক সংহতিসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে বার্মা (মিয়ানমার) উল্লেখযোগ্য চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করছে।

মিয়ানমার সরকার ও জনগণকে এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্র সহায়তা করতে পারে এবং সেটা করতে চায়। ’

১৯৬২ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত মিয়ানমারে সামরিক শাসন জারি ছিল। এরপর ছিল সেনা সমর্থিত আপাত গণতান্ত্রিক সরকার। গত বছর ৮ নভেম্বর নির্বাচনে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন সু চি ও তাঁর দল। এ বছর এপ্রিলে নতুন সরকার ক্ষমতায় বসে। সূত্র : এএফপি, বিবিসি।


মন্তব্য