kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সিরিয়ায় প্রতিরক্ষা ক্ষেপণাস্ত্র পাঠিয়েছে রাশিয়া

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



সিরিয়ায় প্রতিরক্ষা ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা পাঠিয়েছে রাশিয়া। সিরিয়ার তারতাস বন্দরে রুশ নৌঘাঁটিতে এটি মোতায়েন করা হয়েছে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মেজর জেনারেল ইগর কোনাশেঙ্কভ জানিয়েছেন, আকাশ পথে তাঁদের নৌঘাঁটিটির নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থাটি পাঠানো হয়েছে।

সিরিয়া সংকট নিয়ে পশ্চিমাদের সঙ্গে রাশিয়ার উত্তেজনা বাড়ার মধ্যেই ওই পদক্ষেপ নিল মস্কো। সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ বন্ধে রাশিয়ার সঙ্গে চলমান শান্তি আলোচনা গত সোমবার স্থগিত করার ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। তারা রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধবিরতির শর্ত ভঙ্গ করার অভিযোগ আনে। রাশিয়া ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। এর আগে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে প্লুটোনিয়াম নিষ্ক্রিয়করণ চুক্তি স্থগিত করার ঘোষণা দেন। এর আগে ওয়াশিংটন ও মস্কোর মধ্যস্থতায় সিরিয়ায় হওয়া একটি যুদ্ধবিরতি গত মাসে ভেস্তে যায়।

তারতাস বন্দরের রুশ নৌঘাঁটিতে এস-৩০০ বিমান প্রতিরক্ষা ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েন করা হয়েছে। ইগর কোনাশেঙ্কভ বলেন, ‘এস-৩০০ সম্পূর্ণভাবে প্রতিরক্ষামূলক। এই ব্যবস্থা কারও জন্য হুমকি নয়। এস-৩০০ মোতায়েনের কারণে আমাদের পশ্চিমা অংশীদারদের মধ্যে কেন উদ্বেগ সৃষ্টি হলো, তা পরিষ্কার নয়। ’ তিনি জানান, এর আগে পূর্ব ভূমধ্যসাগরে মোতায়েন রুশ যুদ্ধজাহাজ মস্কোভায় যে ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েন করা হয়েছিল এটা সেরকমই একটা প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা।

রাশিয়া এই প্রথম তাদের নিজেদের ভূখণ্ডের বাইরের কোথাও এস-৩০০ প্রতিরক্ষা ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েন করল। ক্ষেপণাস্ত্র সিস্টেমটি অত্যন্ত গতিশীল। এর রাডার, লঞ্চার এবং কমান্ড সিস্টেম অনুসরণযোগ্য বেশ কয়েকটি গাড়িতে বহনযোগ্য। বহু চাকার লঞ্চারের ওপরও এই সিস্টেমটি স্থাপন করা যায়। এটি বিমান, ক্রুজ এবং ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধের উদ্দেশ্যে বিশ্বে এ পর্যন্ত তৈরি করা এরিয়া ডিফেন্স সিস্টেমের মধ্যে অন্যতম মারাত্মক অস্ত্র।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মার্কিন কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে ফক্স নিউজ জানায়, গত সপ্তাহান্তে সিরিয়ায় ওই প্রতিরক্ষা ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েন করে রাশিয়া। সিরিয়ায় উপকূলীয় শহর লাতাকিয়ার কাছে অবস্থিত একটি বিমানঘাঁটিও ব্যবহার করছে রাশিয়া। সূত্র : এএফপি।

 


মন্তব্য