kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আলেপ্পোয় হাসপাতালে হামলা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৩ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



আলেপ্পোয় হাসপাতালে হামলা

সিরিয়ার আলেপ্পো শহরের পূর্বাঞ্চলের বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকায় একটি বৃহত্তম হাসপাতালে শনিবার দ্বিতীয়বারের মতো বোমা হামলা চালানো হয়েছে। এতে একজন নিহত হয়েছে।

হামলার পরিপ্রেক্ষিতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এর কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে। তবে হামলায় নিহত ব্যক্তি হাসপাতালের কর্মী কি না, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। গতকাল রবিবার সিরীয় বাহিনী আলেপ্পোর আরো উত্তরে অগ্রসর হয়েছে।

সিরিয়ার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের মধ্যে আলোচনা হয়েছে। তাঁরা আলেপ্পোর অবস্থা স্বাভাবিক করার সম্ভাব্যতাসহ সিরিয়ার সামগ্রিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখছেন।

জাতিসংঘের মানবিক সাহায্যবিষয়ক প্রধান স্টিফেন ও’ব্রিয়েন অভিযোগ করেছেন, আলেপ্পোয় যে নৃশংসতা চলছে তাতে কোনো মানুষের পক্ষেই টিকে থাকা সম্ভব নয়। তিনি বিশ্বনেতাদের প্রতি এসব দুর্গত মানুষের কষ্ট লাঘবের আহ্বান জানিয়েছেন।

আলেপ্পো এখন সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ বাহিনী ও তাদের একনিষ্ঠ সমর্থক রাশিয়ার বড় ধরনের সামরিক হামলার কেন্দ্রস্থলে পরিণত হয়েছে। গত ২২ সেপ্টেম্বর থেকে বিদ্রোহীদের দখলে থাকা আলেপ্পোর পূর্বাঞ্চলে এ অভিযান শুরু হয়। এতে বেশ কয়েকজন বেসামরিক লোক নিহত ও বেশ কিছু আবাসিক ভবন মাটির সঙ্গে মিশে গেছে। সরকারি সৈন্যরা ওই এলাকার আনুমানিক দুই লাখ ৫০ হাজার বাসিন্দাকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। সিরিয়ায় চলমান সংঘাত বন্ধে ব্যাপক কূটনৈতিক তৎপরতা চালানো হলেও তা কার্যত ব্যর্থ।

ব্রিটিশভিত্তিক পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা দ্য সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানায়, শনিবার রাতভর আলেপ্পোর বুস্তান আল-বাশা, সাকুর ও সুলেমান আল-হালাবি এলাকায় বোমা হামলা চালানো হয়। শনিবার শাকুরের যে হাসপাতালে ব্যারেল বোমা হামলা চালানো হয়েছে, সেটির সহায়তা প্রদানকারী চিকিৎসা সংস্থা সিরিয়ান আমেরিকান মেডিক্যাল সোসাইটি (এসএএমএস) জানিয়েছে, আলেপ্পোয় বেসামরিক নাগরিকদের অবস্থা অত্যন্ত শোচনীয় হয়ে পড়েছে। এসএএমএসের মুখপাত্র আদহাম সাহলুল শনিবারের হামলা সম্পর্কে বলেন, এম-১০ হাসপাতালে দুটি ব্যারেল বোমা আঘাত হেনেছে। এ ছাড়া একটি গুচ্ছ বোমা হামলার খবরও পাওয়া গেছে। তিনি বলেন, হামলার সময় হাসপাতালটিতে কয়েকজন রোগী ও চিকিৎসক ছিলেন। এসএএমএস জানায়, এই বোমা হামলায় হাসপাতালের দুটি স্থাপনার মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে।

শনিবার যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের মধ্যে টেলিফোনে আলাপ হয়েছে। এর আগে গত মাসে দেশ দুটির মধ্যস্থতায় সিরিয়ায় সপ্তাহব্যাপী অস্ত্রবিরতি চুক্তি ভেঙে যায়। মস্কোতে রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ফেসবুকে জানায়, পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ ও মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরির মধ্যে আলোচনা হয়েছে। তাঁরা আলেপ্পোর অবস্থা স্বাভাবিক করার সম্ভাব্যতাসহ সিরিয়ার সামগ্রিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখছেন। রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়, রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চুক্তি সত্ত্বেও ‘অবৈধ সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলো’ লড়াই অব্যাহত রেখেছে। রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা দামেস্ক বা সিরীয় বাহিনীর ওপর যুক্তরাষ্ট্রের সরাসরি হামলা সম্পর্কে সতর্কবাণী করেছেন।

সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য