kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


‘মিস পিগি’ বলার অপরাধ স্বীকার করতে রাজি ট্রাম্প

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



একসময়ের মিস ইউনিভার্স পরে মুটিয়ে যাওয়া অ্যালিসিয়া মাশাদোকে ‘মিস পিগি’ আর ‘মিস হাউজকিপিং’ নামে ডেকেছিলেন বরাবরের বেসামাল বক্তা ডোনাল্ড ট্রাম্প। গত সোমবার প্রেসিডেন্ট প্রার্থীদের বিতর্কে প্রসঙ্গটি নতুন করে সামনে চলে আসার পর সেই নারী তুলে ধরলেন ট্রাম্প সম্পর্কে তাঁর তিক্ত অভিজ্ঞতা।

ট্রাম্প অবশ্য এখন অপরাধ স্বীকার করতে রাজি।

১৯৯৬ সালের মিস ইউনিভার্স খেতাবজয়ী লাতিনো নারী মাশাদো সুন্দরীর মুকুট জয়ের কিছুদিন পরেই মুটিয়ে যান। তাঁর ওজন প্রায় ৬০ পাউন্ড বেড়ে যায়। ওই মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতার নির্বাহী প্রযোজক ছিলেন ট্রাম্প। পরে এক অনুষ্ঠানে ট্রাম্প মাশাদোকে ‘মিস হাউজকিপিং’ (গৃহস্থালির কাজ দেখভালকারী) এবং ‘মিস পিগি’ (মোটাতাগড়া শূকর) আখ্যা দেন। নারীদের উদ্দেশে রিপাবলিকান রাজনীতিক ট্রাম্পের এ ধরনের কটাক্ষ করার অভ্যাসটা গত সোমবার বিতর্কে তুলে আনেন ডেমোক্র্যাট হিলারি ক্লিনটন। হিলারির মতে, কেবল লাতিনো হওয়ার কারণেই অ্যালিসিয়ার উদ্দেশে এ রকম মন্তব্য করার ঔদ্ধত্য দেখিয়েছিলেন ট্রাম্প।

গত মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যম সিএনএনকে অ্যালিসিয়া বলেন, ‘আমি জনাব ট্রাম্পকে বেশ ভালোভাবেই চিনি। ২০ বছর আগে যাঁর সঙ্গে আমার দেখা হয়েছিল, সেই ট্রাম্প এখনো একই রকম রয়ে গেছেন। ’ ওই সময় ট্রাম্পের আচরণ আক্রমণাত্মক আর রূঢ় ছিল বলে মন্তব্য করেন ভেনিজুয়েলার এই সুন্দরী তারকা। এত দিন পর হিলারি বিষয়টি জনসমক্ষে তুলে আনায় তাঁকে ধন্যবাদ জানান অ্যালিসিয়া। ট্রাম্প অবশ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসের কাছে দাবি করেছেন, অ্যালিসিয়া যাতে ওজন কমানোর চেষ্টা করেন, সে জন্য চাপ তৈরির উদ্দেশ্যে তিনি ওই মন্তব্য করেছিলেন। তিনি এটাও বলেন, ‘ওই ব্যাপারে অপরাধ আমি স্বীকার করতে রাজি। ’ সূত্র : সিএনএন।


মন্তব্য