kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জয়-পরাজয়ে গুরুত্বপূর্ণ পাঁচ অঙ্গরাজ্য

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



জয়-পরাজয়ে গুরুত্বপূর্ণ  পাঁচ অঙ্গরাজ্য

যুক্তরাষ্ট্রের প্রবাসী ভোটারদের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটদানে উৎসাহিত করার লক্ষ্যে লন্ডনে প্রচার চালাচ্ছে অ্যাভাজ নামের একটি গ্রুপ। গ্রুপটি তাদের প্রচারে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ঠেকানোরও আহ্বান জানায়। গতকাল তোলা ছবি। ছবি : এএফপি

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া ও টেক্সাস অঙ্গরাজ্যে ভোটসংখ্যা সবচেয়ে বেশি হলেও এগুলো নিয়ে অন্যতম দুই প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর তেমন কোনো চিন্তা নেই। কারণ প্রথমটিতে ডেমোক্র্যাট হিলারি ক্লিনটনের অবস্থান যেমন পাকাপোক্ত, টেক্সাসে রিপাবলিকান ডোনাল্ড ট্রাম্পের অবস্থান তার চেয়ে কোনো অংশে কম নয়।

কিন্তু এমন পাঁচটি অঙ্গরাজ্য রয়েছে, যেগুলোতে এ দুই প্রার্থীর জয়-পরাজয় নিয়ে দোলাচল রয়েছে এবং এসব আসন তাঁদের ভাগ্য নির্ধারণে বেশ জোরালো ভূমিকা রাখবে।

প্রথমেই দেখা যাক ইলেক্টোরাল কলেজ (ইসি) ভোটের দিক থেকে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ফ্লোরিডার চিত্র। ২৯ ইসি ভোটবিশিষ্ট এ অঙ্গরাজ্যে সিএনএন-ওআরসি পরিচালিত সাম্প্রতিক জরিপে ট্রাম্পই এগিয়ে আছেন। তবে জরিপ সংস্থা ফাইভথার্টিএইটের হিসাবে, ফ্লোরিডায় হিলারির জয়ের সম্ভাবনা ৬১.১ শতাংশ এবং ট্রাম্পের ক্ষেত্রে তা ৩৮.৯ শতাংশ। বলা দরকার, বিগত দুই নির্বাচনে এখানে ডেমোক্রেটদের জয় হলেও তার আগের দুই নির্বাচনে এই রাজ্য ছিল রিপাবলিকানদের দখলে। সর্বশেষ ২০১২ সালের নির্বাচনে ডেমোক্রেটরা এক-শতাংশেরও কম ভোটে জিতেছে। সুতরাং সব মিলিয়ে ৮ নভেম্বরের আগে ফ্লোরিডার ফলাফল অনুমান করার কোনো সুযোগ থাকছে না।

আশির দশকজুড়ে পেনসিলভানিয়ায় রিপাবলিকানদের রাজত্ব থাকলেও গত চার নির্বাচনে ডেমোক্রেটরাই জিতেছে। সর্বশেষ নির্বাচনে তারা মাত্র ৬ শতাংশের ব্যবধানে জেতে। ফলে এবার ২০ ইসি ভোটের এ অঙ্গরাজ্যে নির্বাচনপূর্ব জরিপে এখন পর্যন্ত হিলারি এগিয়ে থাকলেও তাঁর জয় নিশ্চিত নয়। এ আসনে ট্রাম্পের জনপ্রিয়তা একটু একটু করে বাড়তে থাকায় প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর আশঙ্কাও বাড়ছে।

১৮টি ইসি ভোটের ওহাইয়ো অঙ্গরাজ্যের গত এক যুগের নির্বাচনী ইতিহাস ফ্লোরিডার মতোই। নির্বাচনী বিশ্লেষকদের কাছে এ অঙ্গরাজ্যের গুরুত্ব এতটাই বেশি যে তাঁরা ওহাইয়োকে ব্যারোমিটার হিসেবে দেখে থাকেন। এ অঙ্গরাজ্যে যেকোনো প্রার্থীর অবস্থান দেখে বিশ্লেষকরা দেশের অন্যান্য স্থানে তাঁদের অবস্থান অনুমান করেন। রিয়েল ক্লিয়ার পলিটিকসের সাম্প্রতিক জরিপে এবার অবশ্য ট্রাম্পকেই এগিয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। হিলারির চেয়ে তিনি পাঁচ পয়েন্টে এগিয়ে আছেন এবং তাঁর গড় অগ্রগতি ১.২ শতাংশ।

প্রায় তিন দশক ধরে মিশিগানে ডেমোক্রেটরা সুসংহত অবস্থানে থাকলেও এবার তাতে চিড় ধরেছে। বিপুলসংখ্যক শ্রমিকের এই অঙ্গরাজ্যে মন্দাগতির অর্থনীতিই পরিস্থিতি পাল্টে দিয়েছে বলে বিশ্লেষকদের অভিমত। পরিবর্তনকামী মিশিগানবাসীর ইলেক্টোরাল কলেজ এবার কাকে জেতাবে, সেটা এখনই অনুমান করা যাচ্ছে না। জরিপ অনুসারে ১৬টি ইসি ভোটবিশিষ্ট এ অঙ্গরাজ্যে হিলারি মাত্র ৫.২ শতাংশের ব্যবধানে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন।

উভয় প্রার্থীর জন্য গুরুত্বপূর্ণ নর্থ ক্যারোলাইনাতেও তাঁদের হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে। গত নির্বাচনে মাত্র ২ শতাংশ ভোটের ব্যবধানে এখানে জয় পায় রিপাবলিকানরা। এবারের পরিস্থিতি সম্পর্কে রিয়েল ক্লিয়ার পলিটিকস বলছে, জরিপে ট্রাম্পের চেয়ে মাত্র ০.৬ শতাংশ এগিয়ে আছেন হিলারি।

এ পাঁচটি অঙ্গরাজ্যের পাশাপাশি কলোরাডো, আইওয়া, নেভাডা, নিউ হ্যাম্পশায়ার, ভার্জিনিয়া ও উইনকনসিনেও জয় নিশ্চিত করতে তীব্র লড়াই হবে হিলারি ও ট্রাম্পের। সূত্র : ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমস।


মন্তব্য