kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


স্যাটেলাইটে পাওয়া ছবি

পাকিস্তান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণে নতুন অবকাঠামো গড়ছে!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



পাকিস্তান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ অবকাঠামো তৈরি করছে বলে ধারণা করছেন পশ্চিমা বিশেষজ্ঞরা। স্যাটেলাইটের মাধ্যমে তোলা কিছু ছবি বিশ্লেষণ করে এমনটা মনে করছেন তাঁরা।

পাকিস্তান বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ পারমাণবিক কাঁচামাল মজুদকারী দেশ। এ কারণে বিশেষজ্ঞদের সন্দেহ আরো তীব্র হয়েছে।

পরমাণু অস্ত্র বিস্তার রোধে গঠিত ৪৮ সদস্যবিশিষ্ট সংগঠন পরমাণু সরবরাহকারী গ্রুপের (এনএসজি) সদস্য হতে চায় পাকিস্তান। বিশ্লেষকদের অভিমত, এনএসজির সদস্য হতে চাওয়া এবং একই সঙ্গে পরমাণু অস্ত্র অর্জনের অভিলাষ বজায় রাখাটা অসংগতিপূর্ণ। পাকিস্তানের ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ প্রকল্প বাস্তবায়নের তথ্য সত্যি হলে এনএসজির নীতিমালার সঙ্গে বিষয়টি সাংঘর্ষিক বলে তাঁরা মনে করেন।

আন্তর্জাতিক বিশ্লেষক সংস্থা আইএইচএস জেনের বিশ্লেষকরা স্যাটেলাইটের মাধ্যমে পাকিস্তানের ভেতরের কিছু ছবি সংগ্রহ করেন। ইউরোপীয় সংস্থা এয়ারবাস ডিফেন্স অ্যান্ড স্পেস ২০১৫ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর এবং চলতি বছর ১৮ এপ্রিল এসব ছবি তোলে। এসব ছবি বিশ্লেষণের ভিত্তিতে সংস্থাটি জানায়, পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদ থেকে মাত্র ৩০ কিলোমিটার পূর্ব দিকে কাহুটা শহরে নতুন স্থাপনার অস্তিত্ব মিলেছে। নিরাপত্তাবেষ্টিত খান রিসার্চ ল্যাবরেটরিজের (কেআরএল) দক্ষিণ-পশ্চিমাংশের ১ দশমিক ২ হেক্টর জমিতে ওই অবকাঠামোর অবস্থান। ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ অবকাঠামোর সঙ্গে এর যথেষ্ট মিল রয়েছে বলে জানান আইএইচএস জেনের অবকাঠামোবর্ধন বিষয়ক বিশেষজ্ঞ কার্ল ডিওয়ে। এ ছাড়া আন্তর্জাতিক পারমাণবিক জ্বালানি কম্পানি ইউরেনকোর অবকাঠামোর সঙ্গেও কেআরএলের ওই অবকাঠামোর মিল রয়েছে।

সংগঠনের ছবি বিশেষজ্ঞ চার্লি কার্টরাইট জানান, পাকিস্তানের পরমাণু কর্মসূচির জনক হিসেবে পরিচিত আবদুল কাদের খান ইউরেনকোতে কাজ করতেন। সেখান থেকে পরমাণু প্রযুক্তির নকশা চুরি করে দেশে চলে আসা এবং তারপর কেআরএল প্রতিষ্ঠা করাটা কাকতালীয়ের চেয়ে বেশি কিছু। আর কেআরএলের সীমানার ভেতরেই ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ অবকাঠামো সদৃশ প্রকল্প গড়ে তোলাটা আরো সন্দেহের জন্ম দিয়েছে।

পাকিস্তানের পদার্থবিদ এ এইচ নায়ারের মতে, কেআরএলের ভেতরে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ প্রকল্প গড়ে তোলা হয়ে থাকলেও সেটা প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। তবে কেবল স্যাটেলাইটে তোলা ছবি দেখে এতটা নিশ্চিত হতে তাঁর আপত্তি রয়েছে। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য