kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ট্রাম্পের চুলের একি দশা!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ট্রাম্পের চুলের একি দশা!

চাঁছাছোলা কথা বলা যার অভ্যাস, সেই ডোনাল্ড ট্রাম্প বেশ হাসিমুখে সহ্য করেছেন এক অভিনব অত্যাচার। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী রিপাবলিকান ট্রাম্পের চুল প্রকাশ্যে যাচ্ছেতাইভাবে এলোমেলো করে দেওয়া এবং সেটা তাঁর হাসিমুখে মেনে নেওয়া অভূতপূর্বই বটে।

আমেরিকার অন্যতম শীর্ষ জনপ্রিয় রাত্রিকালীন টেলিভিশন অনুষ্ঠান ‘দ্য টুনাইট শো স্টেয়ারিং জিমি ফ্যালন’-তে দেখা গেছে ট্রাম্পের নমনীয় আচরণ। গত বৃহস্পতিবারের অনুষ্ঠানে উপস্থাপক ফ্যালন নানাভাবে ট্রাম্পকে উত্ত্যক্ত করার চেষ্টা চালান। ট্রাম্পের কথা বলার ধরন নিয়ে কৌতুকময় মন্তব্যসহ তাঁকে বিরক্ত করার নানামুখী প্রচেষ্টার শেষ পর্যায়ে ফ্যালন বলে বসেন, ‘আমি কি আপনার চুলগুলো এলোমেলো করে দিতে পারি?’ দর্শকদের অবাক করে দিয়ে ট্রাম্প বেশ চওড়া হাসি দিয়ে ওই অনুরোধে সম্মতি দেন।

ফ্যালন অবশ্য এমন অনুরোধের ব্যাখ্যাও দেন। তাঁর বক্তব্য, ট্রাম্প যদি প্রেসিডেন্ট হয়েই যান, তবে তাঁর সঙ্গে এমন ‘অপ্রেসিডেন্টসুলভ’ আচরণের এটাই শেষ সুযোগ। আর সেই সুযোগ হাতছাড়া না করে ফ্যালন সত্যি সত্যি এ রিপাবলিকান রাজনীতিকের চুল রগড়ে একেবারে এলোমেলো করে দেন। ট্রাম্পের পরিপাটি করে আঁচড়ানো চুলগুলো নিমেষেই আলুথালু হয়ে যায়।

অনুষ্ঠানের মাঝখানে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন আর ট্রাম্পকে নিয়েও রসিকতা করেন ফ্যালন। নির্বাচনে প্রচারে নেমে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার চেয়ে পুতিনকে ভালো নেতা বলেছিলেন ট্রাম্প। সেই প্রসঙ্গই অনুষ্ঠানে টেনে আনেন ফ্যালন। তিনি ট্রাম্পের ফাস্ট ফুড গ্রহণের আগ্রহ সম্পর্কেও জানতে চান। জবাবে ট্রাম্প বলেন, ‘অন্ততপক্ষে আপনি জানবেন যে আপনি কী খাচ্ছেন। ’ অপরিচিত কোনো জায়গায় গিয়ে সেখানকার মানুষের সঙ্গে বনিবনা না হলে তিনি যে ফাস্ট ফুডই বেছে নেবেন, সে কথাও জানান ট্রাম্প। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য