kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পেট্রোব্রাস কেলেঙ্কারি

লুলার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ গঠন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



লুলার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ গঠন

লুইস ইনাসিও লুলা

ব্রাজিলের সাবেক প্রেসিডেন্ট লুইস ইনাসিও লুলা দ্য সিলভার বিরুদ্ধে গত বুধবার দুর্নীতির অভিযোগ গঠন করেছেন কেন্দ্রীয় সরকারের আইনজীবীরা। বামপন্থী জনপ্রিয় এই নেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় তেল কম্পানি পেট্রোব্রাস থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে।

অভিযোগে বলা হয়েছে, প্রেসিডেন্ট লুলা ঘুষ হিসেবে ১১ লাখ ডলার নিয়েছেন।

অভিযোগে আরো বলা হয়েছে, লুলা ও তাঁর স্ত্রী সমুদ্রতীরের কাছে একটি অ্যাপার্টমেন্ট উপহার নিয়েছেন। পেট্রোব্রাস কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িত রয়েছে বলে অভিযোগ থাকা শীর্ষস্থানীয় নির্মাণ শিল্প কম্পানি ওএএসের কাছ থেকে অ্যাপার্টমেন্টটি সাজানোরও অর্থ নিয়েছেন।

লুলার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ অবশ্য পুরনো। আইনজীবীরা জানিয়েছেন, পেট্রোব্রাস কেলেঙ্কারির তদন্তের প্রধান বিচারক সের্জিও মোরোর কাছে অভিযোগটি উত্থাপন করা হবে। তিনিই সিদ্ধান্ত নেবেন এটি গ্রহণ করা হবে কি না। তা ছাড়া লুলার মামলাটিও খতিয়ে দেখবেন তিনি।

আইনজীবী দেলতান দালাগনল বলেন, ৭০ বছর বয়সী লুলা এ মামলার ‘প্রধান হোতা’। সাবেক প্রেসিডেন্ট লুলা অবশ্য বরাবরই তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন। তাঁর দাবি, ‘রাজনৈতিক কারণেই’ তাঁর বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ আনা হয়েছে। তাঁর আইনজীবী এ অভিযোগকে ‘হাস্যকর’ বলেছেন।

প্রতিদ্বন্দ্বী কম্পানি ওদেব্রেখটকে এড়িয়ে ওএএসের সঙ্গে অনৈতিক চুক্তি করেছিল ব্রাজিলের বিখ্যাত তেল কম্পানি পেট্রোব্রাস। অভিযোগ ওঠে, এ চুক্তির মাধ্যমে ব্রাজিলের শীর্ষস্থানীয় রাজনীতিবিদরা কন্ট্রাক্টরদের কাছ থেকে আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছিলেন। কোনো কোনো ক্ষেত্রে ব্যক্তিগতভাবে তাঁরা লাভবান হয়েছিলেন, আবার নির্বাচনের জন্য দলের তহবিলেও অর্থ নিয়েছিলেন।

২০০৩ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত লুলা ক্ষমতায় থাকার সময় এই লেনদেন হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। এ অভিযোগে এরই মধ্যে কয়েক ডজন রাজনীতিবিদ এবং শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে বা তাঁদের দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে।

দুর্নীতির অভিযোগ আনা হলেও লুলা ব্রাজিলিয়ানদের কাছে এখনো ব্যাপক জনপ্রিয়। ভোটাভুটিতে দেখা যায়, বামপন্থী ওয়ার্কার্স পার্টির এই প্রতিষ্ঠাতা আগামী ২০১৮ সালের নির্বাচনে ক্ষমতায় ফেরার ব্যাপারে ব্রাজিলিয়ানদের পছন্দের তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন।

গত মাসে পুলিশ লুলার বিরুদ্ধে মামলা করে। সে সময় তাঁর বিরুদ্ধে সাত লাখ ৪৩ হাজার ডলার ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ করা হয়। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য