kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পিয়ংইয়ংকে মানচিত্র থেকে মুছে দেবে দক্ষিণ কোরিয়া!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



পিয়ংইয়ংকে মানচিত্র থেকে মুছে দেবে দক্ষিণ কোরিয়া!

পারমাণবিক হামলার কোনো আশঙ্কা দেখলেই উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ংকে নিশ্চিহ্ন করে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার। সামরিক সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে দেশটির ইয়োনহাপ সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, পারমাণবিক হামলার আশঙ্কা দেখা দিলে পিয়ংইয়ংয়ের প্রতিটি অংশ আন্তমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র এবং উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন শেল দিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে।

মানচিত্র থেকে মুছে দেওয়া হবে।

গত শুক্রবার উত্তর কোরিয়া পঞ্চমবারের মতো পারমাণবিক বোমা পরীক্ষা চালিয়েছে। এ যাবৎকালে উত্তর কোরিয়ার চালানো পরীক্ষার মধ্যে এটাই ছিল সর্বোচ্চ ক্ষমতার বোমা। তাদের এ পরীক্ষায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে এবং দেশটির বিরুদ্ধে আরো নিষেধাজ্ঞা আরোপের পরিকল্পনা করছে। জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিল, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার সহায়তা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র নিষেধাজ্ঞা আরোপের চেষ্টা করছে। অবশ্য উত্তর কোরিয়া এতে মোটেও উদ্বিগ্ন নয়। এরই মধ্যে তারা জানিয়েছে, ‘অবরোধ হবে নিরর্থক এবং এটা সর্বোচ্চ হাস্যরসের সৃষ্টি করবে। ’

দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে ইয়োনহাপ জানিয়েছে, পিয়ংইয়ং উত্তর কোরিয়ার নেতাদের আস্তানা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। তাদের যেকোনো হামলার লক্ষ্যবস্তু হবে এই পিয়ংইয়ং। ব্যাপক হামলা চালিয়ে এই শহরকে ধূলিসাৎ করে দেওয়া হবে এবং মানচিত্র থেকে মুছে দেওয়া হবে।

বিবিসির কোরীয় সংবাদদাতা স্টিভ ইভান্স জানিয়েছেন, উত্তর কোরিয়া যে ধরনের উত্তেজনাপূর্ণ ভাষা ব্যবহার করে, দক্ষিণ কোরিয়াও এবার তেমন ভাষা ব্যবহার করছে। এ নিয়ে দক্ষিণ কোরিয়ায় সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনা হচ্ছে। দক্ষিণ কোরিয়ার জনগণ মনে করে, উত্তর কোরিয়াকে বিচ্ছিন্ন করে কিম জং উনকে তাঁর পারমাণবিক অভিলাষ থেকে দূরে রাখা যাবে না।

উত্তর কোরিয়া বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ দূত সাং কিম বলেন, ‘এই অঞ্চলে উত্তর কোরিয়া আমাদের এবং আমাদের মিত্র দেশগুলোর বিরুদ্ধে বর্তমানে হুমকি হয়ে দেখা দিয়েছে। এই হুমকি থেকে নিজেদের রক্ষার জন্য আমরা সম্ভাব্য সব ধরনের পদক্ষেপ নেব। নিরাপত্তা কাউন্সিল, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে আলোচনা করে আমরা একটা সিদ্ধান্ত নেব। উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে সম্ভাব্য কঠিন সিদ্ধান্ত নেওয়ার ব্যাপারে নিরাপত্তা কাউন্সিলের সঙ্গে আমরা আলোচনা করব। ’

২০০৬ সালে প্রথমবার পারমাণবিক বোমা পরীক্ষা চালানোর পর এ পর্যন্ত পাঁচবার উত্তর কোরিয়া নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়েছে। নতুন করে নিষেধাজ্ঞার হুমকির মুখে থাকলেও তারা বিচলিত নয়, বরং যাই হোক না কেন পারমাণবিক বোমা পরীক্ষা অব্যাহত রাখবে বলে জানিয়েছে তারা।

পঞ্চম পারমাণবিক পরীক্ষার পর উত্তর কোরিয়া তাদের ‘বৈধ পারমাণবিক ক্ষমতাধর রাষ্ট্র’ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি দাবি জানিয়েছে। এ ব্যাপারে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা উত্তর কোরিয়াকে বৈধ পারমাণবিক ক্ষমতাধর রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি না দেওয়ার চেষ্টা করছে। কিন্তু এটা একটা বোকামি, এটা হাত দিয়ে সূর্য ঢাকার চেষ্টা মাত্র। ’ সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য