kalerkantho


প্যারিসে ব্যর্থ সন্ত্রাসী হামলা

আইএসের নির্দেশে তিন নারী হামলার পরিকল্পনা করে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলার চেষ্টার দায়ে গ্রেপ্তার সন্দেহভাজন তিন নারী জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) নির্দেশেই ওই হামলার পরিকল্পনা করেছিল বলে ফরাসি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। গত শুক্রবার ওই তিন নারী সম্পর্কে তাঁরা বেশ কিছু তথ্য জানান।

গত রবিবার প্যারিসের নটর ডেম ক্যাথেড্রালের কয়েক শ মিটারের মধ্যে গ্যাস সিলিন্ডারবোঝাই একটি গাড়ি পরিত্যক্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। ছয়টি সিলিন্ডারের পাঁচটিই গ্যাসভর্তি ছিল এবং গাড়িতে তিনটি জারভর্তি ডিজেলও পাওয়া গেছে। তবে সেখানে কোনো বিস্ফোরক পদার্থ পাওয়া যায়নি। তদন্তকারীদের ধারণা, গ্যাস সিলিন্ডারগুলোর বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নাশকতার পরিকল্পনা করা হয়েছিল।

গ্যাস সিলিন্ডারবোঝাই গাড়িটি পাওয়ার ঘটনায় জঙ্গি হামলার পরিকল্পনাকারী সন্দেহে তিন নারীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার প্যারিসের দক্ষিণে এক শহরতলি থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের সময় ওই নারীদের একজন ১৯ বছর বয়সী ইনেস মাদানি এক পুলিশ কর্মকর্তার পেটে ছুরিকাঘাত করেন। ওই সময় পুলিশ তাকে গুলি করে এবং তিনি আহত হন।

গ্রেপ্তার তিন নারীর একজন ২৩ বছর বয়সী সারা এইচ দুই ফরাসি জঙ্গির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। পৃথক ঘটনায় এক পুলিশ দম্পতি এবং একজন ধর্মপ্রচারককে হত্যার দায়ে অভিযুক্ত ওই দুই জঙ্গির উভয়েই নিহত হয়েছেন। গ্রেপ্তার অপর নারী মাদানি এক চিঠিতে আইএসের প্রতি তাঁর আনুগত্য প্রকাশ করেছিলেন বলে জানায় ফরাসি কর্তৃপক্ষ। আইন কর্মকর্তা ফ্রাঙ্কোয়িস মোলিনস আরো জানান, মাদানি বেশ কয়েকবার সিরিয়া যাওয়ার চেষ্টা করেন। যে গাড়িতে গ্যাস সিলিন্ডারগুলো বোঝাই করা হয়েছিল, সেটির মালিক মাদানির বাবা বলে জানা গেছে। গ্রেপ্তার তৃতীয় নারী ৩৯ বছর বয়সী আমল এস সম্পর্কে জানা গেছে, তাঁর ১৫ বছর বয়সী এক মেয়ে রয়েছে এবং সেও উগ্রপন্থায় বিশ্বাসী হয়ে উঠেছে। তাকেও কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান আইন কর্মকর্তা।

বিদেশ সফরে থাকা ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদ গ্রিসের এথেন্সে এক বক্তব্যে বলেন, ‘একটি হামলা ব্যর্থ করে দেওয়া হয়েছে। একটা দলকে ধ্বংস করা হয়েছে। কিন্তু আরো দল আছে। ’ সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য