kalerkantho


শতবর্ষী নারীর উদ্যোগে বৃদ্ধাশ্রম

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



শতবর্ষী নারীর উদ্যোগে বৃদ্ধাশ্রম

ভারতের আসাম রাজ্যের গুয়াহাটিতে থাকেন অরুণা মুখার্জি। গত ৩১ আগস্ট ১০০ বছরে পা দিয়েছেন তিনি। বরাবরই মানুষের সাহায্যে হাত বাড়িয়ে আসছেন এই নারী। এতখানি বয়সের ভারও তাঁকে ক্লান্ত করতে পারেনি। এই বয়সে এসেও অন্য একাকী বৃদ্ধাদের জন্য তিনি গড়তে চলেছেন একটি বৃদ্ধাশ্রম। নিজের বাড়িতে স্থাপিত বৃদ্ধাশ্রমটির নাম দিয়েছেন তিনি ‘আনন্দধারা আপনগেহ’। প্রাথমিকভাবে ১০ জনকে নিয়ে এর যাত্রা শুরু করছেন।

অরুণা বিবিসি বাংলাকে টেলিফোনে বলেন, ‘যেসব মায়ের ছেলেমেয়েরা বাইরে থাকে, তাঁদের দুঃখ-বেদনা আমি নিজে অনুভব করতে পারি। সে জন্য তাঁদের একসঙ্গে থাকার একটা জায়গা তৈরি করতে চাইছি। কয়েকজন বয়স্ক মানুষের সঙ্গে আমার দিনগুলোও আরো ভালো কাটবে। ’

অরুণার ছেলেমেয়ে, নাতি-নাতনিরা যুক্তরাষ্ট্র আর কানাডায় থাকেন। বৃদ্ধাশ্রম না হলে যে তাঁকে একা থাকতে হয় তা নয়। গান শেখান, ছোট বাচ্চাদের পড়ান, বাগান করেন। এই বয়সেও এত কাজ করার শক্তি কোথা থেকে পান এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এত মানুষের ভালোবাসা আর শ্রদ্ধা পাই, সেখান থেকেই এনার্জি আসে আমার!’

অরুণার জন্ম ঢাকায়। প্রায় ৮০ বছর আগে বিয়ে হওয়ার পর তিনি গুয়াহাটিতে চলে যান। তাঁর স্বামী ছিলেন গুয়াহাটির বিখ্যাত কটন কলেজের রসায়নের অধ্যাপক যদুলাল মুখার্জি। সূত্র : বিবিসি বাংলা।


মন্তব্য